fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

স্কুলের টাকা তছরূপের দাবিতে গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুলতলি: স্কুলের টাকা তছরূপের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করল দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর পুলিশ জেলার অন্তর্গত বকুলতলা থানার পুলিশ। ধৃতের নাম গোবিন্দ মাঝি। তিনি বকুলতলা থানার অন্তর্গত মায়াহাউরি হাইস্কুলের প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা তছরূপ করেছেন বলে অভিযোগ। স্কুল পরিচালন কমিটি তার বিরুদ্ধে এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত শিক্ষককে শনিবার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মায়াহাউরি স্কুলের টিচার ইন চার্জ থাকাকালীন স্কুলের প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা গোবিন্দ মাঝি তছরূপ করেছেন বলে অভিযোগ। এ বিষয়ে স্কুল পরিচালন কমিটিকে কোনরকম হিসেব নিকেশ তিনি দেননি। ফলে স্কুলের টাকার হিসেব না পেয়ে পরিচালন কমিটি অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেন। অভিযুক্ত এলাকার বিজেপি নেতা তথা কুলতলি বিধানসভার অবজারভার ও বারুইপুর পূর্ব সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সদস্য হওয়ায় নিজের প্রভাব খাটিয়ে বেশ কিছুদিন গ্রেফতারি এড়িয়ে ছিলেন।

আরও পড়ুন:এখনই বিধানসভা ভোট হলে এ রাজ্যে কারা সরকার গড়বে: বিজেপি না তৃণমূল?

কিন্তু শনিবার সন্ধ্যায় বকুলতলা থানার নতুন ওসি সৌমেন বিশ্বাসের নেতৃত্বে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতকে রবিবার বারুইপুর মহকুমা আদালতে তোলা হবে। তবে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, নিজের বিরুদ্ধে অভিযোগ হওয়ার পর থেকেই আগাম জামিন চেয়ে বারুইপুর মহকুমা আদালত ও উচ্চ আদালতে আবেদন করেছিলেন অভিযুক্ত শিক্ষক তথা বিজেপি নেতা। কিন্তু সেই আগাম জামিনের আবেদন নাকচ করে আদালত।

এ বিষয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর পূর্ব সাংগঠনিক জেলার বিজেপি সভাপতি হরিকৃষ্ণ দত্ত বলেন, “ ঘটনার কথা শুনেছি, তবে এর পিছনে কতটা সত্যতা আছে সেটা জানা নেই। যদি ঘটনা সত্য হয় তাহলে দল এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। তবে আমাদের প্রাথমিক অনুমান বিগত বেশ কিছুদিন ধরে ওই এলাকায় বিজেপির সংগঠন বাড়ানোর জন্য যথেষ্ট সক্রিয় হয়ে উঠেছিলেন গোবিন্দ। আর সেই কারনেই তাকে চক্রান্ত করে ফাঁসানো হয়েছে”। তবে এ বিষয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বকুলতলা থানার পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close