fbpx
দেশহেডলাইন

কৃষকদের সমর্থনে অনশনে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীও

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অরবিন্দ কেজরিবাল জানিয়ে দিলেন, তিনি কৃষকদের সমর্থনে অনশন করবেন।হরিয়ানা ও পাঞ্জাব থেকে অসংখ্য কৃষক কৃষি আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ আন্দোলন করে যাচ্ছেন।  তাঁরা অনশন করবেন বলে ঘোষণা করেছেন। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরিবালও আগামীকাল তাঁদের সঙ্গে অনশনের ইচ্ছা প্রকাশ করলেন। কৃষি আইনের প্রতিবাদে আগামিকাল সোমবার অনশনে বসছেন কৃষক নেতারা। দিল্লির সিঙ্ঘু সীমান্তে কৃষি আন্দোলনের ধর্না মঞ্চেই অনশনে বসবেন তাঁরা। দেশের অন্যান্য প্রান্তেও অনশন-ধর্না কর্মসূচিতে চলার কথা ঘোষণা করেছেন তাঁরা। দেশের অন্নদাতাদের আন্দোলনের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে একদিনের জন্য ‘উপবাস’পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আপ সুপ্রিমো তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। পাশাপাশি কৃষকদের আন্দোলনের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দেশের আমজনতার কাছেও একদিনের ‘উপবাস’পালনের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লির উপকণ্ঠে গত দু’সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ধর্না-অবস্থান কর্মসূচি চালাচ্ছেন ছয় রাজ্যের কৃষকরা। সময় যত গড়াচ্ছে ততই কৃষক আন্দোলন নিয়ে চাপ বাড়ছে মোদি সরকারের উপরে। যদিও বিজেপি নেতা-মন্ত্রীরা ইতিমধ্যেই শাহিনবান আন্দোলনকে যেভাবে কালিমালিপ্ত করতে আসরে অবতীর্ণ হয়েছিলেন, সেই পথ অনুসরণ করে চলতি কৃষি আন্দোলনের পিছনেও শহুরে নকশাল ও দেশবিরোধী শক্তির মদত রয়েছে বলে আক্রমণ শানাতে শুরু করেছেন।

অরবিন্দ আম আদমি পার্টির কর্মীদেরও অনুরোধ করেছেন, তাঁর সঙ্গে এই অনশনে যোগ দিতে। এর আগে কেন্দ্রীয় সরকারকে কৃষি আইন প্রত্যাহারের অনুরোধও করেছেন অরবিন্দ। কৃষক বিক্ষোভকে সমর্থন করতে গিয়ে অরবিন্দ ২০১১ সালে আন্না হাজারের সঙ্গে তাঁর ‘অ্যান্টি করাপশন’ আন্দোলনের কথা স্মরণ করেছেন। জানিয়েছেন, তখন কংগ্রেস সরকার তাঁদের সঙ্গে যেমন ব্যবহার করেছে, আজ বিজেপি সরকার আন্দোলনরত কৃষকদের সঙ্গে তেমন ব্যবহারই করছে।

আরও পড়ুন: ‘আর নয় বেকারত্ব’ রাজ্যে ৭৫ লক্ষ চাকরির প্রতিশ্রুতি কার্ড আনছে বিজেপি

বিজেপি নেতা-মন্ত্রীদের কৃষকদের আন্দোলনকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘কৃষকদের আন্দোলনকে বহু খেলোয়াড় ও সমাজের বিভিন্ন পেশার বিশিষ্টজনেরা সমর্থন জানিয়েছেন। তাঁরা সবাই কী দেশদ্রোহী? বিজেপি নেতারা আন্দোলনের গায়ে দেশদ্রোহিতার তকমা লাগানোর চেষ্টা চালিয়ে অন্নদাতাদেরই অসন্মান করছেন। সাধারণ মানুষ যেভাবে কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন, তাতে ভয় পেয়েছে। তাই আন্দোলনকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা চলছে। দেশজুড়ে চলা দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্না হাজারে যখন আন্দোলন শুরু করেছিলেন তখন কংগ্রেস নেতৃত্ব যেভাবে ওই আন্দোলনকে বদনাম করার চেষ্টা চালিয়েছিল, বিজেপি নেতৃত্বও সেই পথই অনুসরণ করছে। দেশের সাধারণ মানুষকে অনুরোধ জানাচ্ছি, আগামিকাল আন্দোলনরত কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে বাড়িতেই একদিনের উপবাসে বসুন।’

Related Articles

Back to top button
Close