fbpx
অসমদেশহেডলাইন

স্বাস্থ্যকেন্দ্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজার মেশানো জল খেয়ে গুরুতর অসুস্থ শিশু

অভিযোগের তীর আশাকর্মীর বিরুদ্ধে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অমানবিক ঘটনার সাক্ষী থাকল ত্রিপুরা। স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসা দশ মাসের শিশুপুত্রকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার মেশানো জল খেতে দেওয়ার অভিযোগে ত্রিপুরার এক আশা কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হল। জানা গিয়েছে, জল খেয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়া শিশুটিকে মঙ্গলবারই আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে।

এদিনই শিশুটির পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে লোকাল থানা একটি জিডিও নিয়েছে। যদিও, অভিযুক্ত আশাকর্মীকে এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়নি। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলা থেকে ১৩৩ কিলোমিটার দূরে উনাকোটি জেলার সোনাইমুরী গ্রামে। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার গ্রামের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পোলিয়োর টিকাকরণ চলছিল। পোলিও টিকা দিতে শিশুটিকে গ্রামের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গিয়েছিলেন  শিশুটির মা। পোলিওর টিকা দেওয়ার পর বাচ্চাটির জল তেষ্টা পেলে তিনি ওই আশাকর্মীর কাছে জল চেয়েছিলেন। সেই জল শিশুটি খাওয়ার পরপরই ভয়ানক অসুস্থ হয়ে পড়ে। অসুস্থতার কারণ কিছু বুঝতে না-পেরে, তড়িঘড়ি বাচ্চাকে নিয়ে হাসপাতালে যান মা। বাচ্চাটির অসুস্থতার কারণ যে জল , হাসপাতাল থেকে সে বিষয়ে নিশ্চিত করা হয়।

আরও পড়ুন: স্বপ্ন পূরণ করতে চাই অনেক টাকা, নিজের দু’মাসের সন্তানকে বেচে দিল গর্ভধারিণী মা

এরপর শিশুটির মা পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, বাচ্চার জন্য জল চাইলে হ্যান্ড স্যানিটাইজার মিশ্রিত জলের বোতল এগিয়ে দিয়েছিলেন অভিযুক্ত আশাকর্মী। আর তা থেকেই এই ভয়ানক ঘটনা। হাসপাতালের তরফে বুধবার জানানো হয়েছে, দশ মাসের শিশুটি এখন বিপন্মুক্ত। দু-এক দিনের মধ্যে তাকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

ছেলেকে হাসপাতালে ভর্তি করে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে, সোজা স্থানীয় কুমারঘাট থানায় গিয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বাচ্চাটির মা। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযুক্ত আশাকর্মীকে জিগ্যাসাবাদ করার পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। পুষ্পা দাস নামে ওই আশাকর্মীর বিরুদ্ধে কর্তব্যে গাফিলতি-সহ একাধিক ধারায় অভিযোগ রুজু হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, তদন্ত এখনও চলছে। তবে, বাচ্চাটি বিপন্মুক্ত।

Related Articles

Back to top button
Close