fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পুজোর আগে শিলিগুড়িতে উদ্বোধন হবে বেশ কয়েকটি উন্নয়নমূলক কাজ: অশোক ভট্টাচার্য

কৃষ্ণা দাস, শিলিগুড়ি: পুজোর আগেই শিলিগুড়ির মহানন্দা নদীর বিসর্জন ঘাটের সৌন্দর্যায়নের কাজ সম্পন্ন করে ঘাটটি উদ্বোধনের পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়া শিলিগুড়ির মহিষমারী নদীর ওপরে একটি সেতু তৈরীর কাজও পুজোর আগেই সম্পন্ন করে উদ্বোধনের পরিপল্পনা রয়েছে শিলিগুড়ি পুরনিগমের। করোনা আবহে লকডাউনে শিলিগুড়ি পুরনিগমের উন্নয়নের কাজ থমকে গিয়েছিল। সেই কাজ প্রায় যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শুরু হয়ে গিয়েছে। সেই সমস্ত কাজগুলো শনিবার শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসক মন্ডলীর চেয়ারম্যান তথা প্রশাসক অশোক ভট্টাচার্য পরিদর্শনে যান। পরিদর্শন শেষে এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

শিলিগুড়ি পুরনিগমের বাম বোর্ডের প্রতি শাসক দল তৃণমূলের বরাবরের অভিযোগ বাম পুরবোর্ড উন্নয়নে ব্যর্থ। রাজ্য সরকার থেকে টাকা এসে পড়ে থাকা স্বত্বেও বঞ্চনার অভিযোগ করছে পুরনিগম। অভিযোগ পাল্টা অভিযোগের মাঝেই পুরনিগমের বাম বোর্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। করোনা আবহে নতুন করে নির্বাচন না হওয়ায় রাজ্য সরকারের তরফে প্রশাসক মন্ডলী তৈরী করে বাম বোর্ডের হাতেই দায়িত্বভার তুলে দেওয়া হয়। এদিকে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন। শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসক তথা শিলিগুড়ির বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য এদিন শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য তথা পুরনিগমের পূর্ত দফতরের প্রাক্তন মেয়র পারিষদ নুরুল ইসলাম ও পুরনিগমের ইঞ্জিয়ারদের সাথে নিয়ে শিলিগুড়ির ৪২, ৪৩ ও ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের মহানন্দা ও মহিষমারী নদীর চরের কাজগুলি পরিদর্শনে যান। পরিদর্শন করে তিনি শিলিগুড়ি পুরনিগমের ইঞ্জিনিয়ারদের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি জানান লকডাউনের সময় উন্নয়নের কোনো কাজ করতে দেওয়া হয় নি তারপরও যেভাবে ইঞ্জিনিয়াররা দ্রুততার সাথে কাজ করেছে তা প্রশংসনীয়। তিনি তাদের কাজে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি জানান মহানন্দা ঘাটের সৌন্দর্যায়নের জন্য একদিকে বৃক্ষরোপন, পাড় বাধানো যেমন হচ্ছে তেমনিভাবে আলোকসজ্জাতেও আকর্ষণীয় করে তোলা হবে। এমনভাবে লাইট লাগানো হবে যার প্রতিফলন পড়বে নদীর জলে। মহানন্দা নদীর ব্রীজ থেকে সেই রূপ ফুটে উঠবে। এছাড়া বড় বড় শহরে যেমন প্রাকৃতিক বনাঞ্চল থাকে তেমনিভাবে শিলিগুড়ির ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে অনেক বড় এলাকা নিয়ে প্রাকৃতিক বনাঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে। এখানে মানুষজন বেড়াতে আসতে পারবে। এছাড়া গ্রীন সিটি মিশনে আরও বেশ কিছু সৌন্দর্যায়ন ও বৃক্ষরোপনের কাজ হাতে নেওয়া হবে। তিনি জানান ইতিমধ্যে ২ কোটি টাকার সৌন্দর্যায়নের কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে ও ব্রীজের কাজের জন্য এককোটি সব মিলিয়ে তিনকোটি টাকার কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব কাজ গুলো শেষ করা হবে।

Related Articles

Back to top button
Close