fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

‘হিন্দুদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার বার্তা দিলেন’ দক্ষিণবঙ্গ বিশ্বহিন্দু পরিষদের কার্যকর্তা অশোক সাহা

তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর: ঝাড়গ্রাম জেলার অন্তর্গত লালগড়ের ধরমপুরে মঙ্গলবার বজরঙ্গ দলের উদ্যোগে হনুমানজীর পুজোর্চ্চনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বজরঙ্গ দল ধরমপুর (লালগড়) কমিটির সৌজন্যে এদিন বেশ জাঁকজমক পূর্ণভাবে হনুমানজির পুজোর্চ্চনা, হরিনাম সংকীর্তনের পাশাপাশি একটি ধর্মীয় সভার আয়োজন করা হয়েছিল। এদিনের সভায় উপস্থিত কয়েকশো জনসাধারণ, স্থানীয় বাসিন্দারা হিন্দুধর্ম সম্বন্ধে জ্ঞানলাভ, হিন্দু সংগঠন, বর্তমানে হিন্দুদের ঐক্যবদ্ধভাবে হিন্দু জাতির রক্ষার্থে এই জাতিকে টিকিয়ে রাখার জন্য নিজেদের সঙ্গবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

এ দিনের ধর্মীয় সমাবেশে মূল বক্তা দক্ষিণবঙ্গের বিশ্বহিন্দু পরিষদের কার্যকর্তা অশোক সাহা তাঁর বক্তব্যে বলেন, “হিন্দুদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, বর্তমানে হিন্দু ধর্ম আজ নানা জায়গায় শোষণ, শিকার, এবং লাঞ্ছিত হচ্ছেন। অন্যান্য সম্প্রদায়ের মানুষদের মধ্যে যে হারে একত্রিত বা সঙ্গবদ্ধ সারি পরিলক্ষিত, কিন্তু আমরা হিন্দুরা আজ নিজেদের ধর্ম ভুলতে বসেছি। এবার আমাদের জেগে উঠতে হবে, সজাগ হতে হবে। যে ভাবে খ্রিস্টান, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়রা আজ এত বেশি মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে একদিন আমাদের স্বপ্নের ‘ভারত’ অতীতের ‘হিন্দুস্থান’ ছিল, তা হয়তো কিছুকাল পর মুসলিম রাষ্ট্রে না পরিণত হয়ে যায়! এই হিন্দুস্থান শব্দটার অর্থ, আমরা হিন্দু, এটাই আমাদের ধর্ম, এটাই আমাদের বাসস্থান। পাকিস্তান অনেক আগেই নিজেদের ইসলাম রাষ্ট্র ঘোষণা করেছে, পাশের বাংলাদেশও আজ ইসলাম রাষ্ট্রে ঘোষিত, কিন্তু আজ আমরা প্রকৃতপক্ষে নিজেদের ধর্ম, নিজেদের আচার ভুলতে বসেছি। সেই সুযোগে অন্য সম্প্রদায়ের আজ এত বেশি হারে বৃদ্ধি, তারা শোষণ করছে, মন্দির ভাঙছে, লুটতরাজ চালাচ্ছে, এখনও যদি আমরা হিন্দুরা যদি জেগে না উঠি, এর পরিণাম খুব ভয়াবহ আকার ধারণ করবে, নিজেদের একত্রিত হতে হবে।

আরও পড়ুন:প্রবল বৃষ্টি, হায়দরাবাদে দেওয়াল ধসে ২ মাসের শিশু সহ মৃত ৯

এদিনের সভায় হিন্দু ধর্ম, সংগঠন, হিন্দুদের একত্রিত করার লক্ষ্যে নানা বিষয়ক ও রাম মন্দির সংক্রান্ত বিষয় সমন্ধে আলোচনা করেন গড়বেতা বজরং দলের সহ সংযোজক সহদেব ভুইয়াঁ ও ঝাড়গ্রাম জেলার বজরং দল সংযোজক সুজিত মাইতি, এবং বিষ্ণুপুর বজরং দলের জেলা সহ সংযোজক সমীর দুলে এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ঝাড়গ্রাম, বিষ্ণুপুর ও গড়বেতার বিশ্বহিন্দু পরিষদ ও বজরঙ্গ দলের অন্যান্য কর্মকর্তা এবং সদস্যবৃন্দরা।

Related Articles

Back to top button
Close