fbpx
কলকাতাহেডলাইন

আত্মনির্ভর ভারত গড়তে প্রযুক্তিবিদ্যা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে: ন্যাস

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতা: গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টার সময় শিক্ষা সংস্কৃতি উত্থান ন্যাস, পশ্চিমবঙ্গ প্রান্তের তরফ থেকে আত্মনির্ভর ভারত গড়তে প্রযুক্তি বিদ্যার ভূমিকার ওপর একটি রাষ্ট্রীয় স্তরের অনলাইন আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়।পুরো কার্যক্রমটি ন্যাসের পশ্চিমবঙ্গ প্রান্তের প্রযুক্তি বিদ্যার সংযোজক এবং বিশিষ্ট পরমাণু বৈজ্ঞানিক ডা. নিশীথ কুমার দাশের তত্বাবধানে আয়োজন করা হয়।

আলোচনাসভাটি পরিচালনা করেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্কিটেকচারের অধ্যাপক ডা. সঞ্জীব নাগ। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এআইসিটিইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. অনিল সাহাস্রবুদ্ধে, আলোচনাসভার প্রথম বক্তা হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন,”শুধুমাত্র প্রযুক্তিবিদ্যা দিয়েই ভারতকে আত্মনির্ভর করা যাবে না, আত্মনির্ভর ভারত গড়তে প্রযুক্তিবিদ্যার মধ্যে থেকে বাণিজ্যিক ভাবে সফল হওয়ার ক্ষমতাসম্পন্ন গবেষণায় মনোযোগ দিতে হবে, স্বাবলম্বী হতে হবে শিক্ষা ক্ষেত্রে এবং পাশ্চাত্য নির্ভর অনুসন্ধানের থেকেও ভারত কেন্দ্রিক গবেষণার উপর বেশি প্রাধান্য দিতে হবে”।

উক্ত সভার দ্বিতীয় বক্তা সাহা ইনস্টিটিউট অফ নিউক্লিয়ার ফিজিক্সের বিশিষ্ট পরমাণু বৈজ্ঞানিক ডা. জিষ্ণু বসু নিজের বক্তব্যের মধ্যে বলেন, “ভারতকে আত্মনির্ভর করতে সর্বপ্রথম চেষ্টা করেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের রূপকার তথা জনসংঘের প্রতিষ্ঠাতা ডা শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, চিত্তরঞ্জন লোকোমোটিভ ওয়ার্কশপ ছিল শ্যামাপ্রসাদেরই মস্তিষ্কপ্রসূত যা আজ সারা দেশের রেল ব্যবস্থার পরিকাঠামোর একটি গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ”। উনি আর বলেন “প্রায় ৭০ বছর আগেই যখন স্বাবলম্বী ভারতের দিকনির্দেশ বাংলার থেকে হয়েছিল তাহলে বাঙালিরা এখনও পথ দেখাতে পারে, দরকার শুধু একটু সদিচ্ছা এবং প্রতিজ্ঞা”।

আলোচনা সভার অপর বক্তা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টেকনিকাল টিচার’স ট্রেনিং এন্ড রিসার্চ, কলকাতার নির্দেশক অধ্যাপক ডা. দেবী প্রসাদ মিশ্র, তার ভাষণে বলেন, “শিক্ষক কেন্দ্রিক শিক্ষা যদি আমরা সমাজকে প্রদান করতে পারি তাহলে প্রযুক্তিশিক্ষা কেন যে কোনো ধরণের শিক্ষাই বিদ্যার্থীদের কাছে অনেক সহজ হয় যাবে যার দরুন বিদ্যার্থীদের মানসিক বিকাশ ঘটবে এবং প্রকৃত অর্থে এই সমস্ত নবীন প্রজন্মরাই ভারতকে আত্মনির্ভর হয় ওঠার দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে”।

অধ্যাপক ডা. দেবী প্রসাদ মিশ্র

অনুষ্ঠানের অন্তিম বক্তা মুম্বই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন কুলপতি অধ্যাপক ডা. সঞ্জয় দেশমুখ যিনি তার কর্মজীবনে এম.এস. স্বামীনাথনের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতা শ্রোতাগণদের মাঝে তুলে ধরেন তার পাশাপাশি তিনি তার বক্তব্যের মাধ্যমে ভারতকে আত্মনির্ভর বানানোর একটি বিস্তারিত রোডম্যাপ প্রকাশ করেন।তিনি আরও বলেন ,” ভারত তখনই স্বাবলম্বী বা আত্মনির্ভর হবে যখন প্রকৃত ভারতীয় শিক্ষা এবং প্রযুক্তির প্রয়োগ আমরা বিদ্যার্থীদের মাধ্যমে পৌঁছে দিতে পারবো,

অধ্যাপক ডা. সঞ্জয় দেশমুখ

ভারতীয় সংস্কৃতির উজ্জ্বল ইতিহাসের গুরুত্ব যদি আমরা আমাদের ছাত্রছাত্রীদের বোঝাতে পারি তাহলে বিদ্যার্থী সমাজ নিজে থেকেই আত্মনির্ভর বানানোর জন্য সচেষ্ট হবে”। উক্ত আলোচনা সভাতে যোগদান করেছিল সারা দেশের প্রায় ৪০০ থেকে ৪৫০ বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এবং গবেষক।

Related Articles

Back to top button
Close