fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি কর্মীর বাড়িতে হামলা ও বোমাবাজির ঘটনায় উত্তপ্ত দিনহাটার ভেটাগুড়ি

নিজস্ব সংবাদদাতা, দিনহাটা: বিজেপি কর্মীর বাড়িতে হামলা ও বোমাবাজির ঘটনায় ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল দিনহাটার ভেটাগুড়ি এলাকা। তৃণমূল কর্মীর বাড়িতে হামলার কয়েক ঘন্টা কাটতে না কাটতে এবার বিজেপির মণ্ডল সভাপতি মলয় রায়ের বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল। সোমবার রাতে দিনহাটা এক ব্লকের ভেটাগুড়িতে এই ঘটনা ঘটে। অভিযোগ, বিজেপির ২২/২৩ নং মণ্ডল সভাপতি মলয় রায় মণ্ডলের বাড়িতে এদিন রাতে দুষ্কৃতিরা হামলা চালায়। যাওয়ার পথে তারা বোমা ফাটায়। যদিও ওই দুষ্কৃতীরা বাড়ির ভিতরে ঢুকতে না পারায় তেমন কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানা গিয়েছে।এই ঘটনায় বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। যদিও ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব।
বিজেপির মণ্ডল সভাপতি মলয় রায় মণ্ডল বলেন, আমরা সন্ত্রাসের রাজনীতিতে বিশ্বাস করি না। তৃণমূলের নিজেদের মধ্যে গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন কাজের টাকা পয়সা ভাগ নিয়ে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে দ্বন্দ চলছে। তাদের নিজেদের গণ্ডগোলকে বিজেপির ঘাড়ে চাপিয়ে কুৎসা রাটাচ্ছে। তার বাড়িতে তৃণমূলের একদল দুষ্কৃতীরা হামলা চালায়। ঘরের জানালা ভেঙে ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করে। কিন্তু তারা ঢুকতে না পেরে হুমকি ও গালিগালাজ করে ফেরার পথে রাস্তায় বোমা ফাটায়।বিজেপি কর্মীদের উপর তৃণমূলের সন্ত্রাস সবাই জানে। গতকাল রাতে আমার বাড়িতে তৃণমূলের একদল দুষ্কৃতীরা হামলা চালায়।

ঘরের জানালা ভেঙ্গে ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করে। কিন্তু তারা ঢুকতে না পেরে হুমকি ও গালিগালাজ করে ফেরার পথে রাস্তায় বোমা ফাটায়। দীর্ঘ দিন থেকে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা বিজেপি কর্মীদের মারধর করছে, তাদের বাড়িতে হামলা চালাচ্ছে। ভেটাগুরি মানুষ সবাই তা জানে। তৃণমূল দল সান্ত্রাসবাদী দলে পরিণত হয়ে গেছে। আই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে এলাকার মানুষ রুখে দাঁড়ালে তার দায় তৃণমূলকেই নিতে হবে।

ভেটাগুড়ি দুই অঞ্চল তৃণমূলের যুগ্ম আহ্বায়ক সুনীল রায় সরকার বলেন, বিজেপি এলাকায় সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে। তারাই আমাদের দলের কর্মীদের বাড়িতে হামলা ও বোমাবাজি করেছে। সেটা এলাকার মানুষ জানে। বিজেপি কোনও নেতা বা কর্মীর বাড়িতে হামলার কোন কথা আমার জানা নেই। যদি এরকম কোন ঘটনা হয়ে থাকে সেটা পুরোটাই তৃনমূল কে কালিমালিপ্ত করার জন্য সাজানো ঘটনা।
পুলিশ সূত্রে খবর, ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close