fbpx
কলকাতাহেডলাইন

যাদবপুরের ভাড়াবাড়িতে প্রেমিকের সঙ্গে অশান্তি, গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা বধূর!

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: বছর কয়েক আগে বিয়ে হলেও স্বামীর সঙ্গে বিশেষ বনিবনা ছিল না দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ের বাসিন্দা গৃহবধূ তানিয়া সর্দারের। সেই কারণে যাদবপুরে একদম আলাদা ফ্ল্যাট নিয়ে থাকা শুরু করেছিলেন তিনি। কিন্তু একা থাকতে থাকতে জড়িয়ে পড়েন বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কেও। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে সেই প্রেমিকের সঙ্গেও শুরু হয় অশান্তি। অভিযোগ, তার জেরেই গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ওই গৃহবধূ। তাকে বাঁচাতে গিয়ে আংশিক দগ্ধ হয়েছেন তার প্রেমিক নিতাই সর্দারও। বর্তমানে এনআরএস হাসপাতালের বার্ন ওয়ার্ডে ভর্তি রযেছেন ওই মহিলা।

[আরও পড়ুন- দিনের আলোয় মসজিদ ভাঙলেও দোষী নয়! সিবিআই আদালতের রায়ে হতাশ মুসলিমদের ভরসা সুপ্রিম কোর্টই]

জানা দিয়েছে, ওই মহিলার স্বামী বিশ্বনাথ সর্দার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ের বাসিন্দা। তানিয়া কিছুদিন আগে কাজের জন্য শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে যাদবপুরের আজাদগড়ে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়ে সেখানকার একটা বাড়ি ভাড়া নেন। অভিযোগ, নিতাই সর্দার নামে ওই বধূর প্রেমিক নিয়মিত সেখানে যেতেন। তানিয়া ওই বাড়িতে একা পড়ে রয়েছেন, তা পছন্দ ছিল না নিতাইয়ের। তাই আগের স্বামী বিশ্বনাথকে ছেড়ে তার সঙ্গে তানিয়াকে যাওয়ার জন্য জোরাজুরি করত সে। কিন্তু তানিয়া মানসিকভাবে প্রস্তুত ছিল না। আর এই নিয়ে মঙ্গলবার রাতে বিবাদ চরমে ওঠে।

মঙ্গলবার গভীর রাতে লালবাজারে খবর যায়, আজাদগড়ের বাসিন্দা এক মহিলা আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছন পুলিশ আধিকারিকরা। দেখা যায়, আগুনে ঝলসে গিয়েছেন অনিতাদেবী। ঘটনাস্থলে ছিলেন এক যুবকও। তিনিও আংশিক দগ্ধ অবস্থায় ছিলেন। নিতাই জানান, হঠাৎই গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন অনিতা। চোখের সামনে প্রেমিকাকে দাউদাউ করে জ্বলতে দেখে বাঁচানোর চেষ্টা করেন। সেই সময় দগ্ধ হন তিনিও। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই দুই পরিবারে খবর দেওয়া হয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close