fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

অনিয়ন্ত্রিত! এখন মালগাড়ির গতি স্বাভাবিকের চেয়ে দ্বিগুণের বেশি: সাফাই রেলমন্ত্রকের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: শুক্রবার ঔরঙ্গাবাদ এ দুর্ঘটনায় মৃত শ্রমিকদের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিবৃতি দিল রেল মন্ত্রক।   রেল লাইনের উপরে বেশ কিছু মানুষকে দেখতে পেয়েই হর্ন বাজাতে শুরু করেছিলেন মাল গাড়ির চালক৷ ট্রেন থামানোরও চেষ্টা করেছিলেন তিনি৷ কিন্তু দুটো চেষ্টার কোনওটাই শেষ পর্যন্ত সফল হয়নি৷ যার ফলে কয়েক মুহূর্তের মধ্যে মালগাড়ির চাকায় ছিন্নভিন্ন হয়ে যায় অন্তত ১৬জন পরিযায়ী শ্রমিকের দেহ৷ ঔরঙ্গাবাদের মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় বিবৃতি দিয়ে এমনই দাবি করল রেল মন্ত্রক৷

শুক্রবার ভোর ৫.২০ মিনিট নাগাদ ঔরঙ্গাবাদ জেলার বদনাপুর এবং কারমাদ স্টেশনের মাঝে রেল লাইনের উপরে মালগাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ হারান ১৬ জন পরিযায়ী শ্রমিক৷ মহারাষ্ট্রে কর্মরত ওই শ্রমিকদের বাড়ি মধ্যপ্রদেশে৷ দীর্ঘ পথ হেঁটে ঔরঙ্গাবাদ স্টেশনে পৌঁছে সেখান থেকে বাড়ি ফেরার চেষ্টায় ছিলেন তাঁরা৷ রেল লাইন ধরেই হাঁটছিলেন তাঁরা৷ কিন্তু প্রায় চল্লিশ কিলোমিটার পথ হেঁটে পেরনোর পর ক্লান্ত হয়ে রেল লাইনের উপরেই ঘুমিয়ে পড়েন তাঁরা৷ ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় রেল লাইনের উপরেই শুয়ে পড়েছিলেন শ্রমিকরা৷ কিন্তু সেই লাইনে হঠাৎ একটি মালগাড়ি চলে আসায় মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে যায়৷

রেল সূত্রে জানানো হয়েছে চলতি লকডাউন এর ফলে অন্যান্য রেল পরিষেবা বন্ধ থাকায় মালগাড়ির স্পিড স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটাই বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। অন্যান্য সময় মালগাড়ি যদি ঘন্টা  ২৪ কিলোমিটার বেগে চলে এই সময় তার দ্বিগুণেরও বেশি অর্থাৎ ৫০ কিমি বেগে চলছে বলে জানানো হয়। আকস্মিক শ্রমিকদের অনলাইনে দেখতে পাওয়ায় গতি নিয়ন্ত্রণ করা ড্রাইভার এর পক্ষে সম্ভব হয়নি বলে জানানো হয়েছে রেল মন্ত্রকের পক্ষ থেকে। যোজক গোটা বিষয়টির ওপর নজর রাখছে রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল নির্দেশ দিয়েছে উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের।

Related Articles

Back to top button
Close