fbpx
কলকাতাহেডলাইন

লকডাউনে পুলিশের তাড়া খেয়েই উলঙ্গ হয়ে হাওড়া ব্রিজের উপর ছুটলেন অটোচালক

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  লকডাউনের ভোরে গঙ্গাস্নান একটু অন্যরকম। নিস্তব্ধ, শুনশান ঘাট। অটো করে গঙ্গা স্নানে গিয়েছিলেন তিন বন্ধু। তবে ফেরার সময় পুলিশের জেরার মুখে পড়ে পালানোর যে পন্থা অবলম্বন করলেন অটোচালক তাতে কার্যত তাজ্জব বনে গিয়েছেন পুলিশ আধিকারিকরা। পুলিশের তাড়া খেয়ে অটোচালক যা করলেন, তা দেখে তাজ্জব টহলরত পুলিশরাও! উলঙ্গ হয়ে হাওড়া ব্রিজের  উপর দিয়ে লাগালেন দৌড়। কোনওক্রমে তাঁকে ধরে অটো ও সওয়ারি সমেত নিয়ে যাওয়া হল নর্থ পোর্ট থানায়।

শনিবার রাজ্যজুড়ে আগস্ট মাসের দ্বিতীয় সাপ্তাহিক লকডাউন। সেইমতো বিভিন্ন এলাকায় কড়া নাকা চেকিং চালাচ্ছে পুলিশ। আজ রাজ্যে সম্পূর্ণ লকডাউন । কলকাতা ও জেলার কোথাও কোথাও সকাল থেকে লকডাউন উপেক্ষা করে মানুষজনের বাইরে বেরনোর ছবি দেখা গিয়েছে। পুলিশ কড়া হাতে তা মোকাবিলাও করেছে। কিন্তু হাওড়া ব্রিজের একটি ঘটনা রীতিমতো স্তম্ভিত করে দিয়েছে পুলিশ কর্তাদের। লকডাউন উপলক্ষে নাকা চেকিং চলছি হাওড়া ব্রিজে। ব্যারিকেড দিয়ে বন্ধ করে রাখা হয়েছিল ব্রিজে ওঠার রাস্তা। এমনিতে লকডাউনের দিনগুলোয় হাওড়া ব্রিজের মতো হাই সিকিউরিটি জোনে কোনও নিয়মভঙ্গের ঘটনা ঘটেনি। তবে পুলিশি টহল রয়েছেই। হাই সিকিউরিটি

এদিন সকালে টহলরত পুলিশদের হঠাৎ চোখে পড়ে, হাওড়া ব্রিজের দিকে এগিয়ে আসছে একটি অটো। হাওড়া ব্রিজে ওঠার মুখে গার্ডরেল দিয়ে বন্ধ রাখা হয়েছে রাস্তা। এর মধ্যেই এদিন সকাল আটটা নাগাদ দেখা গেল একটি অটো ওই গার্ডরেল উপেক্ষা করে ব্রিজের ওপর দিকে আসছে। এরপর পুলিশ বাহিনী ধাওয়া করে অটো টিকে থামালে দেখা যায় ওর ভেতরে তিনজন যুবকই ভেজা গায়ে গামছা পড়ে বসে আছে। এরপর পুলিশ জেলা করতেই ওই যুবকরা জানান, তারা এদিন সকালে গঙ্গাস্নানে এসেছিলেন। এর মধ্যে পুলিশ বুঝতে পারে ওই তিন যুবকই মদ্যপ অবস্থায় রয়েছে।

আরও পড়ুন: লকডাউন সফল করতে কড়া প্রশাসন! বাড়তি নজর কলকাতায়

এরপরেই লকডাউন অমান্য করার অপরাধে তাদের থানায় যেতে হবে জানাতেই অটোতে চালকের আসনে যে যুবক বসেছিলেন তিনি তার পরনে গামছাটা খুলে অনাবৃত অবস্খাতেই ছুটতে শুরু করেন হাওড়া ব্রিজ ধরে। যা দেখে মুহূর্তের মধ্যে হতভম্ব হয়ে যান পুলিশ আধিকারিকরা। সঙ্গে সঙ্গেই নিজেদেরকে সামলে নিয়ে ধাওয়া করে ওই যুবককে ধরে ফেলেন তারা। এরপরে ওই তিন যুবককে অটোতে বসিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় উত্তর বন্দর থানায়। তিন জনের বিরুদ্ধেই সরকারি আইন অমান্য করার ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

Related Articles

Back to top button
Close