fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নদীয়া জেলায় ১০০ জনের বেশি মুমূর্ষু রোগীকে রক্ত দিল AVBP 

অভিষেক আচার্য, কল্যাণী: করোনাভাইরাসের কারণে দেশজুড়ে দেখা দিয়েছে রক্তের সঙ্কট। যার ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন রোগীর আত্মীয়রা। রক্তের চাহিদা থাকলেও ব্লাড ব্যাঙ্ক থেকে মিলছে না রক্ত। এই অবস্থায় ১০০জন রোগীকে রক্ত দিয়ে তাঁদের পাশে দাঁড়ালো এভিবিপি।

 

 

সরকার বা বিভিন্ন গণসংগঠন মানুষের প্রয়োজনীয় সামগ্রীর ব্যবস্থা করে দিলেও,রক্তের সঙ্কটমোচনের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নিতে দেখা গেছে নদীয়া জেলার অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদকে। লকডাউনের মাঝেই তাঁরা সরাসরি হাসপাতালে গিয়ে ১০০ জনের অধিক মুমূর্ষু রোগীকে রক্ত দিলেন। এভিবিপি নদীয়া জেলা সংযোজক অভিজিৎ বিশ্বাস বলেন, লকডাউনের কারনে রক্তের সঙ্কট দেখা দেবে এটা মাথায় রেখে নদীয়া জেলায় আমরা কল্যাণী, রানাঘাট,কৃষ্ণনগর, নবদ্বীপ, তেহট্ট এই ৫টি ব্লাড ব্যাঙ্কে হেল্পলাইন নম্বর খুলি এবং উক্ত হেল্পলাইন নম্বরগুলিতে প্রতিদিনই রক্তের জন্য ফোন আসে, সঙ্গে আমাদের কার্যকর্তা এবং আমাদের আনুষঙ্গিক বিভিন্ন সংগঠনের কার্যকর্তারা, সঙ্গে সঙ্গে ছুটে গিয়ে রক্ত দিয়ে আসি।

 

এভিবিপির এই উদ্যোগে খুশি রোগীর আত্মীয়রা। তাঁদের বক্তব্য, এই কঠিন পরিস্থিতিতে রক্ত পাওয়া সত্যি খুব দুষ্কর। অধিকাংশ ব্লাড ব্যাঙ্ক বন্ধ। চাহিদা থাকলেও মিলছে না রক্ত। তার উপর চড়া দামে রক্ত পাইয়ে দেওয়ার জন্য ওত পেতে বসে রয়েছে রক্ত পিপাসুরা। ফলে এইভাবে সরাসরি রক্ত পেয়ে যাওয়ায় উপকৃত হয়েছেন তাঁরা। শুধু একটা ফোন, ব্যাস আপনার কাছে পৌঁছে যাবেন রক্তদাতা। এই কঠিন পরিস্থিতিতে রক্তের প্রয়োজন হয়েছে অনেকের। কিন্তু দীর্ঘ লক ডাউন থাকার সুবাদে অনেকেই ব্লাড ব্যাংক থেকে ফিরে গিয়েছেন খালি হাতেই। এবার আর শূন্য হাতে যাতে রোগীর আত্মীয়দের ফিরতে না হয় সেদিকে নজর রেখেই এবিভিপির এই উদ্যোগ। আগামী দিনে তাঁদের এই প্রয়াস চলবে বলে জানানো হয়েছে এবিভিপির পক্ষ থেকে।

Related Articles

Back to top button
Close