fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা মোকাবিলায় এসএমএস পদ্ধতিতে সাধারণ মানুষকে সচেতনতা

নিজস্ব প্রতিনিধি, দিনহাটা: মারন করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় এসএমএস পদ্ধতিতে সাধারণ মানুষকে সচেতনতা করতে প্রচার শুরু করলো দিনহাটার এক চিকিৎসক ও তার সহযোগীরা। প্রশাসনকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে শহরের পাশাপাশি আগামীতে মহকুমার বিভিন্ন গ্রাম এলাকায় গিয়ে এই প্রচার অভিযান চালানো হবে বলে জানা গিয়েছে। এই রোগের হাত থেকে মানুষকে সচেতন করতে বিভিন্ন  ক্লাব ও সংগঠনের পাশাপাশি এবার অভিনবভাবে এসএমএস পদ্ধতিতে  প্রচার শুরু করেছেন  চিকিৎসক অজয় মণ্ডল। করোনা মহামারীর কঠিন এই সময়ে  চিকিৎসকের উদ্যোগে এসএমএস প্রচার সাধারণ মানুষের মধ্যেও বেশ সাড়া পড়ে বলেও তার দাবি।

চিকিৎসকের উদ্যোগে এসএমএস প্রচারের অঙ্গ হিসেবে এই রোগ মোকাবিলায় যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে তা সঠিকভাবে মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব হলে কিছুটা হলেও সুফল মিলবে বলেও মনে করছেন অনেকে। করোনা মোকাবিলায় যারা প্রথম সারিতে থেকে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে টি-শার্ট। যেখানে লেখা রয়েছে এসএমএস। ইংরেজি হরফে এসএমএসের প্রতিটি অক্ষরের মানে তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়াও মোবাইল নম্বর নিয়ে তাদেরকেও টিমের পক্ষ থেকে এসএমএস পাঠিয়ে এই রোগ মোকাবিলায় কি কি সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে তা তুলে ধরা হবে।

ইতিমধ্যে এসএমএস লেখা টি শার্ট দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে সুপার রঞ্জিত মন্ডল, দিনহাটা থানার পুলিশ আধিকারিকদের পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্ণধার গোকুল সরকার, অর্ঘ্য কমল সরকার, সুস্মিতা চন্দ, পার্থপ্রতিম চন্দ, সঞ্জিত কর্মকার, সঞ্জয় নাগ, রতন সাহা প্রমূখদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

চিকিৎসক অজয় মণ্ডল জানান, করোনা মহামারী ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। এই রোগ প্রতিরোধে পুলিশ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে মানুষকে নানাভাবে সচেতন করা হচ্ছে। তা সত্ত্বেও দেখা যাচ্ছে হাট-বাজার বিভিন্ন দোকানে সামাজিক দূরত্ব থাকছে না। মাস্ক না পড়েই অনেকেই বেরিয়ে পড়ছেন। তাই এসএমএস লেখা টি-শার্ট বিলি করা হচ্ছে।

ছবিতে তুলে ধরা হয়েছে এস অর্থাৎ সেফ ডিসটেন্স। মিনিমাম দুই মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এম অর্থাৎ মুখে মাস্ক পড়া। এস অর্থাৎ স্যানিটাইজার কিংবা সাবান দিয়ে হাত ধোয়া বাধ্যতামূলক।
স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্ণধার গোকুল সরকার বলেন, চিকিৎসক যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা সঠিকভাবে মেনে চললে কিছুটা হলেও সুফল মিলবে।

দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে সুপার রঞ্জিত মন্ডল বলেন করোনা মোকাবিলায় বিভিন্নভাবে সচেতনতা প্রচার শুরু হয়েছে। চিকিৎসক অজয় মণ্ডল এসএমএস প্রচারের মাধ্যমে এই রোগ মোকাবিলায় মানুষকে সচেতন করতে এগিয়ে আসায় অনেকটাই সুবিধা হবে।

Related Articles

Back to top button
Close