fbpx
দেশহেডলাইন

আলোর রোশনাইতে উদ্ভাসিত রামের অযোধ্যা, রামলালার দর্শন সেরে আরতি করলেন প্রধানমন্ত্রী

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: দীপাবলিতে আলোর রোশনাইতে উদ্ভাসিত রামের অযোধ্যা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্তিতিতে আলাদা মর্যাদা পেল এই রাজ্য। প্রায় ১৭ লক্ষের বেশি প্রদীপ জ্বালিয়ে রাজ্যবাসীকে এক অন্যন্য অনুভূতি চিরতরে এঁকে দিলেন মোদী।

লঙ্কা জয় করে সীতাকে নিয়ে এই দিনেই  অযোধ্যায় ফিরে আসেন ভগবান রাম। সেই উপলক্ষে সেদিন অযোধ্যাবাসী গোটা নগরকে আলোয় আলোয় সাজিয়ে তুলেছিলেন। সেই দিনকে মাথায় রেখে এদিন অযোধ্যা সেজে উঠল নববধূর সাজে। প্রায় ১৭ লক্ষের বেশি প্রদীপ জ্বালিয়ে আলোর রোশনাইতে ভরে গেল চারিদিক।

এক জায়গায় একসঙ্গে এতগুলি প্রদীপ এর আগে জ্বলেনি কখনও। সরযূ তটকে এদিন কার্যত চেনাই যাচ্ছিল না। ২২ হাজার স্বেচ্ছাসেবক এই প্রদীপ জ্বালান। প্রদীপ জ্বালানোই ছিল প্রধান আকর্ষণ। চোখ ধাঁধানো লেজার শোয়ের আয়োজন।

রাম কি পৈদি ঘাটে এই লেজার শোয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। এছাড়া ৫০০টি ড্রোনের সাহায্যে আকাশেই অ্যানিমেশনের মধ্যে দিয়ে এদিন ফুটিয়ে তোলা হয় রামায়ণ যুগের নানা মুহূর্ত। ছিল ৩ডি হলোগ্রাফিক শো। তাই একদিকে যেমন অযোধ্যা সেজেছিল প্রদীপের আলোয়। তেমনই অন্যদিকে অযোধ্যায় ছিল নানা নয়া প্রযুক্তির কেরামতি।

অযোধ্যায় শ্রীরামের জন্মভূমির তীর্থক্ষেত্র পরিদর্শন  করে মন্দিরে  বিরাজমান রামলালাকেও দর্শন ও পুজো সারেন তিনি। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী  যোগী আদিত্যনাথের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অযোধ্যায় রামমন্দির দর্শনে গিয়েছিলেন। সেখানে নির্মাণ কাজ কিভাবে এগোচ্ছে তা খতিয়ে দেখেন প্রধানমন্ত্রী। দীপোৎসব অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবেই সেখানে রামলীলা অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়েছিল। যোগী আদিত্যনাথ ছাড়াও ছিলেন গভর্নর আনন্দীবেন পটেল। অযোধ্যায় সরযূ নদীর তীরে আগে আরতি হয়। পাঁচটি অ্যানিমেটেড ট্যাবলো এবং ১১টি রামলীলা ট্যাবলো উপস্থিত ছিল। ২২ হাজার স্বেচ্ছাসেবক এই ২০ লক্ষ  প্রদীপ প্রজ্বলন করেন।

 

Related Articles

Back to top button
Close