fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বেহাল রাস্তার কারনে গৃহবন্দি একাধিক গ্রামের বাসিন্দারা

দিব্যেন্দু রায়, কেতুগ্রাম: দীর্ঘদিন রাস্তার  সংস্কার হয়নি। ফলে পাকা রাস্তার জায়গায় জায়গায়  বড় বড় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছিল৷ এখন  বর্ষার বৃষ্টিপাতের কারনে ওই সমস্ত গর্তে এক হাঁটু জল জমে গেছে৷ কেতুগ্রাম-২ ব্লকের সীতাহাটি পঞ্চায়েত এলাকার উদ্ধারণপুর থেকে সিরুলিয়া পর্যন্ত প্রায় ৬ কিলোমিটার রাস্তার এমন বেহাল অবস্থার কারনে কার্যত গৃহবন্ধি অবস্থায় থাকতে হচ্ছে ৭-৮ টি গ্রামের বাসিন্দাদের। স্থানীয়দের অভিযোগ, রাস্তাটি সংস্কারের জন্য স্থানীয় পঞ্চায়েতের কাছে একাধিকবার আবেদন জানিয়েও কোনও কাজ হয়নি৷ এই বিষয়ে সীতাহাটি পঞ্চায়েতের প্রধান বিকাশ বিশ্বাস বলেন, “রাস্তা সংস্কারের জন্য প্রশাসন ও জেলা পরিষদের কাছে জানিয়েছিলাম‌। আবারও জানাবো।”

[আরও পড়ুন- নাবালিকার বিয়ে আটকে দিল পুলিশ]

জানা গেছে, উদ্ধারণপুর পশ্চিমপাড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে সিরুলিয়া পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এই পাকা রাস্তাটি জেলা পরিষদের অধীনে৷ এই রাস্তার উপর নির্ভরশীল উদ্ধারণপুর, সীতাহাটি, দত্তবাটি, নৈহাটি সহ প্রায় ৮ গ্রামের বাসিন্দারা।  এই এলাকায় রয়েছে একটি উচ্চ বিদ্যালয়, ৭ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়,  স্বাস্থ্যকেন্দ্র, সমবায় সমিতির অফিস। গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, রাস্তাটি দীর্ঘদিন সংস্কার করা হয়নি। তার উপর যানবাহন যাতায়তের কারনে রাস্তায় বড় বড় খানাখন্দে ভর্তি হয়ে গেছে। ওই অবস্থাতেই তাঁরা কোনও রকমে চলাচল করছিলেন। কিন্তু বর্তমানে রাস্তার গর্তগুলিতে বর্ষার বৃষ্টিপাতের জল জমে যাওয়ায় চলাচল কার্যত অসম্ভব হয়ে গেছে৷ রাত বিরেতে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে বিপাকে পড়তে হচ্ছে রোগীর পরিবারের লোকজনদের। স্থানীয় পঞ্চায়েত ও প্রশাসনের কাছে রাস্তা সংস্কারের জন্য বারবার আবেদন জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।   এনিয়ে এলাকায় ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close