fbpx
দেশহেডলাইন

হাথরাসের ছায়া উত্তরপ্রদেশের বলরামপুরে, গণধর্ষণে মৃত তরুণী, মাদক খাইয়ে নৃশংস নির্যাতন

বলরামপুরের মতোই নৃশংসতা দেখা গিয়েছে বুলন্দশহর  এবং আজমগড়েও

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে উত্তরপ্রদেশে।হাথরাসের ঘটনার  রেশ কাটতে না কাটতেই ফের উত্তরপ্রদেশের বলরামপুরে  মাদক খাইয়ে এক যুবতীকে ধর্ষণ করা হল। শুধু ধর্ষণ নয়, দুষ্কৃতীদের নৃশংস অত্যাচারে শেষপর্যন্ত প্রাণও হারাতে হয়েছে ওই যুবতীকে। ‘মরতে চাই না মা..’। মৃত্যুর আগে বার বার একই কথা বলছিলেন বছর বাইশের তরুণী। দিনভর পৈশাচিক নির্যাতন চালিয়ে সন্ধের আগে ই-রিকশায় চাপিয়ে নির্যাতিতাকে বাড়ি ফিরিয়ে দিয়েছিল অপরাধীরাই। ‘মেয়ে যখন বাড়ি ফিরল ওর সারা শরীরে দগদগে ক্ষত। হাত-পা ভাঙা ছিল। শিরদাঁড়া ভেঙে দিয়েছিল। ময়ে বলছিল ওর পেটে জ্বালাপোড়ার মতো যন্ত্রণা করছে। দাঁড়াতে পারছিল না ঠিক করে, বলছিল মরতে চায় না। কিন্তু বাঁচাতে পারলাম না’  নির্যাতিতার মা।

নির্যাতিতার পরিবারের অভিযোগ, গত মঙ্গলবার সকালে ওই তরুণীকে অফিসের পথ থেকে অপহরণ করে দুই দুষ্কৃতী। তাঁকে মাদক খাওয়ানো হয়। তারপর গণধর্ষণ। ভেঙে দেওয়া হয় হাত-পা, শিরদাঁড়া। ধর্ষণ এবং নির্যাতনের পর কার্যত অচেতন অবস্থায় ওই তরুণীকে রিক্সায় বসিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেয় দুষ্কৃতীরা। কাতর সুরে নির্যাতিতার মা বলছিলেন, “আমার মেয়েটাকে ওরা বাড়ির উঠোনে ফেলে রেখে চলে গেল। ও উঠে দাঁড়াতে পারছিল না, কথাও বলতে পারছিল না ঠিকমতো। শুধু কাতরস্বরে বলছিল, আমি মরতে চাই না।” ওই নির্যাতিতাকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করে পরিবার। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে লখনউ নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। কিন্তু পৈশাচিক নির্যাতনের জেরে পথেই তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনায় শাহিদ এবং সাহিল নামের দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে একজন নাবালক। ঘটনায় শাহিদ এবং সাহিল নামের দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে একজন নাবালক।

আরও  পড়ুন: স্বাগত! বলছেন রাষ্ট্রবাদী মুসলিমরা

হাথরাস, বলরামপুরের মতোই নৃশংসতা দেখা গিয়েছে বুলন্দশহর  এবং আজমগড়েও । বুলন্দশহরে ১৪ বছর বয়সের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি মঙ্গলবার রাতের। অন্যদিকে আজমগড়ে নির্যাতিতার বয়স মাত্র ৮ বছর। ওই শিশুকন্যাকে স্নান করানোর আছিলায় ধর্ষণ করেছে ২০ বছরের এক প্রতিবেশী যুবক। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি নির্যাতিতা। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত একমাসে ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন, অপহরণের মতো অপরাধ বেড়ে গেছে উত্তরপ্রদেশে। একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা সামনে আসছে। সমাজবাদী পার্টি নেতা অখিলেশ যাদব টুইট করে বলেছেন, ‘হাথরসের পরে ফের গণধর্ষণের ঘটনা ঘটল উত্তরপ্রদেশের বলরামপুরে। এবারেও মৃত্যু হল নির্যাতিতার। বিজেপি-সরকার হাথরসের ঘটনার মতো কাণ্ড না ঘটিয়ে দ্রুত এই অপরাধের কিনারা করুক। অভিযুক্তের গ্রেফতার করা হোক।’

 

Related Articles

Back to top button
Close