fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অফিস টাইমে ৬০০ যাত্রী নিয়ে বনগাঁ, ক্যানিং লোকাল সম্ভব! চিন্তার ভাঁজ রেল কর্তাদের

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: আসনসংখ্যার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে সকাল সন্ধ্যার ব্যস্ত সময়ে সীমিত সংখ্যক লোকাল ট্রেন চালাতে চাইছে রাজ্য সরকার। সোমবার নবান্নে পূর্ব ও দক্ষিণ পূর্ব রেলের আধিকারিকদের সঙ্গে মুখ‌সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিবসহ অন্যান্য আধিকারিকদের বৈঠক হয়। চূড়ান্ত বৈঠক হবে বৃহস্পতিবার। কিন্ত প্রশ্ন উঠছে অফিস টাইমের ব্যস্ত সময়ে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে নির্বিঘ্নে লোকাল ট্রেন চালানো যাবে তো?
ইতিমধ্যেই স্টাফ ট্রেনে ওঠা নিয়ে কয়েক দফার অশান্তির জেরে প্রশ্নটা উঠছে। বিশেষ করে রেল ও রাজ্যের বৈঠকের দিন সকালে যেভাবে বৈদ‌্যবাটি স্টেশনে গোলমাল হয়েছে তাতে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন রেল কর্তারা। একটি পূর্ণ দৈর্ঘ্যের লোকাল  ট্রেনে যাত্রীর আসন সংখ্যা ১২০০। সেখানে কোভিড বিধি মেনে অর্ধেক সংখ্যক যাত্রী উঠতে পারবেন ট্রেনে। অর্থাৎ ৬০০ জন।  পূর্ব রেলের শিয়ালদা শাখায় স্বাড়াবিক সময়ে ( রবিবার বাদে) ৯১৫ টি লোকাল ট্রেন চলে, হাওড়া শাখায় সংখ্যাটা ৪০৭। সোমবারের বৈঠকে ঠিক হয়েছে প্রাথমিকভাবে এই সংখ্যার ১০ থেকে ১৫ শতাংশ ট্রেন চালানো হবে। পরে পরিস্থিতি অনুযায়ী ধীরে ধীরে বাড়ানো হবে।
মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘ যাত্রী স্বার্থে ট্রেন পরিষেবা চালু করতে হলেও অতিমারির পরিস্থিতি এখনও রয়েছে। তাই ট্রেন চালানোর সঙ্গে কোভিডের সুরক্ষা বিধি মেনে চলা জরুরী।’  প্রশ্ন উঠছে যাঁরা ট্রেনে উঠতে পারবেন না বা যাঁদের উঠতে দেওয়া হবে না, তাঁরা শান্তভাবে মেনে নেবেন? ভূক্তভোগী মাত্রেই জানেন, বনগাঁ লোকাল বা ক্যানিং লোকালে স্বাভাবিক সময়ে কী ভিড় হয়। এই ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা যাবেতো? এই সমস্ত বিষয়গুলোর উত্তর খুঁজেই সম্ভবত বৃহস্পতিবার ফের বৈঠকে বসবেন রেলকর্তারা।

Related Articles

Back to top button
Close