fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রেশন বণ্টনে হস্তক্ষেপের অভিযোগে বিষ্ণুপুরের পুরপ্রধানকে শোকজ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ত্রাণবণ্টন নিয়ে তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে ভুরি ভুরি দুর্নীতির অভিযোগ আসছিল দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে। এরপরই তা নিয়ে কড়া পদক্ষেপের পথে হাঁটে রাজ্যের শাসকদল।  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  নির্দেশ দেন, কোনও অভিযোগ পাওয়ামাত্রই শোকজ করা হবে অভিযুক্তকে। দলের শীর্ষনেত্রী হিসাবে এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, রেশন-ত্রাণে দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না। যেমন বলা তেমন কাজ।রেশনে ত্রাণসামগ্রী বণ্টন ব্যবস্থায় হস্তক্ষেপ করার অভিযোগ পেয়েই বিষ্ণুপুর পৌরসভার পৌরপ্রধান তথা বিষ্ণুপুর ব্লক সভাপতি শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এবং দলের আরও দুই নেতাকে শোকজ করল বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল।

বিষ্ণুপুর ব্লক সভাপতির পাশাপাশি কারণ দর্শানোর নোটিস পেয়েছেন তালড্যাংরার তাপস সুর ও পাত্রসায়ের ব্লকের নেতা বাবলু সিং। দলীয় সূত্রে খবর, এই তিন নেতার বিরুদ্ধে রেশন ব্যবস্থায় হস্তক্ষেপ করার অভিযোগ উঠেছিল। তাঁদের বিরুদ্ধে শুরু হয়েছে দলীয় তদন্ত। আজ বিষ্ণুপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান তথা ব্লক তৃণমূল সভাপতি শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়-সহ তিন নেতাকে শোকজ নোটিস পাঠানো হল। শনিবার বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি শুভাশিস বটব্যাল সাংবাদিক সম্মেলন করে দলের এই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেছেন। শুভাশিসবাবু বলেন, ”আমাদের তরফে সমস্ত রিপোর্ট পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে রাজ্য নেতৃত্বের কাছে।”

আরও পড়ুন: মঙ্গলকোটের মাঝিগ্রামে মন্দির উদ্বোধনে মন্ত্রী শশী পাঁজা

গত কয়েক মাস ধরেই এই জেলায় শাসকদলের একাধিক নেতা-নেত্রীর বিরুদ্ধে রেশন বন্টনে হস্তক্ষেপ ও স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠেছিল। সেই সমস্ত অভিযোগের ভিত্তিতে দলের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি শুভাশিস বটব্যাল। তাঁর বক্তব্য, দলনেত্রী এই পদক্ষেপের মাধ্যমেই দলীয় কর্মী ও সমর্থকদের কাছে স্বচ্ছতার বার্তা দিতে চাইছেন।

Related Articles

Back to top button
Close