fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা আবহে পুলিশি নজরদারিতে ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে পিতৃ তর্পণ ও বিশ্বকর্মা পুজো অনুষ্ঠিত

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: করোনা আবহে উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন গঙ্গার ঘাট গুলিতে একই সঙ্গে সুসম্পন হল পিতৃতর্পণ এবং এই শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন কলকারখানায় বিশ্বকর্মা পুজো। কড়া পুলিশি নজরদারিতে গঙ্গার ঘাটে ঘাটে হল পিতৃতর্পণ। অন্যদিকে প্রশাসনের নির্দেশে চলতি বছরে আড়ম্বর ও জাঁকজমক বাদ দিয়ে বিভিন্ন কলকারখানায় অনুষ্ঠিত হল বিশ্বকর্মা পুজো। উৎসব অনুষ্ঠান ঘিরে যেন সকলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখে, সেই কারনেই এদিন ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের বিভিন্ন থানার পুলিশ কর্মীরা এদিন শিল্পাঞ্চল জুড়ে নজরদারি চালিয়েছে। একইসঙ্গে চলছে পুলিশ কর্মীদের জন সচেতনতামূলক প্রচার মাইকিং।

মহালয়ার সকালে পিতৃতর্পনে গঙ্গার ঘাটে ঘাটে ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের বিভিন্ন থানার পুলিশের কড়া নজরদারি এবং জন সচেতনতামূলক প্রচার চোখে পড়েছে। ভোরবেলা থেকে পুলিশ কর্মীরা গঙ্গা বক্ষে ভেসেলে করে মাইকিং শুরু করেছেন। একই সঙ্গে বিভিন্ন গঙ্গার ঘাটে ঘাটে বসেছে পুলিশি প্রহরা। করোনা আবহে পিতৃতর্পনে গঙ্গার ঘাটে পুলিশ নিরাপত্তা দিতে তৎপর ছিলেন পুলিশ কর্মীরা। বারে বারে  পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিংয়ের মাধ্যমে প্রচার চলছে যাতে কেউ গঙ্গার গভীরে চলে না যান। সকলে যাতে পিতৃতর্পনে গঙ্গার ঘাটে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখেন সকলে এবং তর্পনের পর মাস্ক ব্যবহার করেন নাগরিকরা, পুলিশের পক্ষ থেকে সেই প্রচার করা হয় গঙ্গার ঘাট গুলিতে। উত্তর ২৪ পরগনার ইছাপুর মন্ডল ঘাটে দেখা গেল গঙ্গায় বান আসার সময় তর্পণ করতে আসা নাগরিকদের সচেতন করে তাদের গঙ্গার পাড়ে নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে  নিয়ে যান প্রহরারত পুলিশ কর্মীরা।

[আরও পড়ুন- বিশ্বকর্মা থাকলেও পুজোয় জৌলুস নেই দুর্গাপুর বিশ্বকর্মানগরীতে]

অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর একটু বেশি ব্যতিক্রমী সকলের কাছেই। প্রশাসন ও বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করেছে চলতি বছরের পিতৃ তর্পনে গঙ্গার ঘাট গুলিতে। সকলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে যাতে তর্পণ করেন, বারংবার তর্পণ কারীদের সে বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে। করোনা আবহে প্রশাসনের নির্দেশ মেনে জাঁকজমক বাদ দিয়েই ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে অনুষ্ঠিত হল বাবা বিশ্বকর্মার আরাধনা। ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের  শ্রমিকদের বাবা বিশ্বকর্মার কাছে একটাই প্রার্থনা করোনা মুক্ত হোক গোটা পৃথিবী, নতুন করে কাজ ফিরে পাক সর্বস্তরের শ্রমিকরা। করোনা আবহে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে জাঁকজমক বাদ দিয়েই সুসম্পন্ন হল চলতি বছরের বিশ্বকর্মা পুজো। ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে প্রশাসনের নির্দেশে জুটমিল গুলির মধ্যে বিশ্বকর্মা পুজো হল খোলা মেলা পরিবেশ বজায় রেখে জাঁকজমক আড়ম্বড় বাদ দিয়েই। প্রত্যেক বছরই বিশ্বকর্মা পুজোয় ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন জুটমিলের মধ্যে মহা ধুমধাম করে পুজো করেন শ্রমিকরা।

তবে এবছর প্রশাসনের নির্দেশ ছিল পুজো করলেও যাতে পুজোর প্যান্ডেলে শ্রমিকরা ভিড় না করেন। প্রশাসনের সেই নির্দেশ মেনেই ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন জুটমিল সহ নানান কলকারখানায় চলতি বছরে বিশ্বকর্মা পুজো হল ছোট করেই। বেশিরভাগ জুটমিলে পুজো উপলক্ষে যাতে ভিড় না করে শ্রমিক পরিবারের সদস্যরা, সেই কারনে শ্রমিকদের পরিবারকে এবছর কারখানায় আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এবছরও জুটমিলের ভেতরে প্যান্ডেল করে হচ্ছে বাবা বিশ্বকর্মার আরাধনা, তবে এবছর কারখানায় শ্রমিক জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে, বন্ধ রাখা হয়েছে কারখানার ভেতরের উৎসব অনুষ্ঠান।

Related Articles

Back to top button
Close