fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজ্ঞানের যুগেও চিকিৎসকের পরিবর্তে ওঝাতেই ভরসা, মৃত্যু সাপে কাটা রোগির

শ্যাম বিশ্বাস, উত্তর ২৪ পরগনা: বিজ্ঞানের যুগেও কুসংস্কারাচ্ছন্ন মানুষ। তারই প্রমাণ পাওয়া গেল বসিরহাটে। সাপে কাটা রোগিকে চিকিৎসকের পরিবর্তে নিয়ে যাওয়া হল ওঝার কাছে। সেখানেই মৃত্যু হল রোগির। বসিরহাটের বাসিন্দা ওই প্রৌঢ় ও তাঁর স্ত্রীকে সাপে কাটার পর হাসপাতালের পরিবর্তে ওঝার বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানেই মৃত্যু হয় প্রৌঢ়। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন তাঁর স্ত্রী।

মঙ্গলবার রাতে মশারি টাঙিয়ে ঘুমিয়েছিলেন মাটিয়া থানা এলাকার বাসিন্দা সফিকুল দফাদার ও তাঁর স্ত্রী খাদিজা বিবি। সেই সময় কোনওভাবে মশারির ভিতর ঢুকে পড়েছিল একটা সাপ। আচমকা ঘুম ভাঙতেই সফিকুল সাপটিকে দেখতে পান। এরপরই শুরু করেন আর্তনাদ। পরিবারের অন্যান্যরা ছুটে আসে। সাপটিকে লাঠি দিয়ে মেরে ফেলে সফিকুলের ছেলে।

[আরও পড়ুন- মাধ্যমিকে একই নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ যমজ দুই বোন]

সেইসময় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে খাদিজা বিবি। সাপে কামড়েছে অনুমান করে তড়িঘড়ি তাঁকে ওঝার কাছে নিয়ে যায় পরিবারের সদস্যরা। সঙ্গে যান সফিকুলও। কিছুক্ষণ পর থেকেই অসুস্থ বোধ করতে শুরু করেন সফিকুলও। এরপর সাপে কামড়েছে অনুমান করে তাঁকেও ঝাড়ফুঁক করানো হয়। শেষপর্যন্ত ওঝার বাড়িতেই মৃত্যু সফিকুলের। হাসপাতালে ভর্তি করা হয় খাদিজা বিবিকে। উত্তর ২৪ পরগনার যুক্তিবাদী বিজ্ঞান মঞ্চ সদস্য রঞ্জিত মুখার্জি বলেন, ‘এটা খুব দুঃখজনক ঘটনা। দিরের পর দিন ঘটেই চলেছে এই ঘটনা। মানসিকতার কোনও পরিবর্তন নেই।’

Related Articles

Back to top button
Close