fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গণধর্ষণের ঘটনায় উত্তপ্ত বসিরহাট, ঘটনাস্থলে পুলিশ ও কমব্যাট ফোর্স

সংকটে নির্যাতিতার শারীরিক অবস্থা, অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ

শ্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: মহিলাকে বাড়িতে থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল বসিরহাটে। চারজনের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। অবিলম্বে ওই চার দুষ্কৃতীকে গ্রেফতারের দাবিতে রাস্তা অবরোধ ও টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেছেন গ্রামবাসীরা। ঘটনাস্থলে উত্তেজনা থাকায় পুলিশ ও কমব্যাট ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান অভিযুক্তরা নির্যাতিতার পূর্ব পরিচিত। বৃহস্পতিবার ভোর থেকে ঘটনা ঘিরে উত্তপ্ত বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার গোপালপুর এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের মুন্সিঘেরি।

আরও পড়ুন:সেফ হোমের দায়িত্বে থাকা চিকিৎসকের দাদাকে মারধর, এলাকায় ঢুকতে না দেওয়ার হুমকি, গ্রেফতার ৫

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বছর ২৮ এর গৃহবধূ আজ বৃহস্পতিবার ভোরবেলা বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যান। তারপর তাকে হাত-পা বাঁধা অচৈতন্য অবস্থায় দেখতে পায় মেছোঘেরির কর্মীরা। তারা সঙ্গে সঙ্গে পরিবারের লোককে খবর দিলে ঘটনাস্থলে নির্যাতিতার স্বামী সহ গ্রামবাসীরা হাজির হন। ওই গৃহবধূ উদ্ধার করে প্রথমে হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে স্থানান্তরিত করা হয় বসিরহাট জেলা হাসপাতালে। ঘটনাস্থলে হাড়োয়া থানার পুলিশ গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। ওই নির্যাতিতার প্রত্যক্ষ বয়ান অনুযায়ী চারজনের বিরুদ্ধে হাড়োয়া থানায় গণধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযুক্তরা সকলেই পলাতক।

মেছোঘেরি একটি নির্জন এলাকা। ওই মহিলা নির্জন মেছোঘেরিতে একা কেন আসলেন তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
নির্যাতিতার স্বামী হাড়োয়া বাজারে এক মাছের দোকানে কাজ করেন। ঘটনায় পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি তুলেছেন নির্যাতিতার স্বামী।
পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নেমেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close