fbpx
খেলাহেডলাইন

৭ বছরের খরা কাটিয়ে আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠলো বায়ার্ন মিউনিখ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: শেষপর্যন্ত ৭ বছরের খরা কাটিয়ে আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠলো বায়ার্ন মিউনিখ। শেষবার তারা ফাইনালে উঠেছিল ২০১২-১৩ মরশুমে। কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সেলোনাকে ৮-২ গোলে হারানোর পর সেমিফাইনালেও বড় জয় পেল বায়ার্ন মিউনিখ । ৩-০ গোলে অপেক্ষাকৃত দুর্বল লিয়ঁকে উড়িয়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের টিকিট কেটে ফেললেন মুলাররা। ফাইনালে তাঁদের প্রতিপক্ষ পিএসজি। ম্যানচেস্টার সিটি এবং জুভেন্তাসের মতো বড় দলের বিরুদ্ধে জিতে সেমিফাইনালে উঠেছিল লিওন। খাতায় কলমে অনেক এগিয়ে থাকলেও তাই বায়ার্নের বিরুদ্ধে আত্মবিশ্বাসী হয়েই মাঠে নেমেছিল রুডি গার্সিয়ার ছেলেরা। কিন্তু শেষপর্যন্ত ৩-০ গোলে হেরে সেমিফাইনালেই থেমে গেল লিওনের স্বপ্নের দৌড়।

বুধবার রাতে লিসবনে বড় ব্যবধানেই ফ্রান্সের প্রতিপক্ষকে হারিয়েছে বায়ার্ন। জার্মানদের হয়ে দুটি গোল করেছেন সের্জ নাব্রি। শেষ গোলটি করেছেন লিওয়েনডস্কি। ম্যাচের প্রথম গোলটি আসে মাত্র ১৮ মিনিটেই। দ্বিতীয় গোলটি আসে ৩৩ মিনিটে। অর্থাৎ প্রথমার্ধেই স্পষ্ট হয়ে যায় খেলার ফলাফল কোনদিকে গড়াতে চলেছে। বায়ার্নের হয়ে এই দুটি গোলই করেন নাব্রি। খেলার একেবারে শেষলগ্নে ৮৮ মিনিটে গোল করে লিয়ঁর (Lyon) কফিনে শেষ পেরেকটি পোঁতেন লিওয়েনডস্কি। যদিও বার্সার বিরুদ্ধে যেমন একপেশে খেলা হয়েছিল, লিয়ঁর বিরুদ্ধে কিন্তু তেমন একপেশে খেলা হল না। জয়ের ব্যবধানটা বড় হলেও বায়ার্নকে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। বেশ কয়েকটি সহজ সুযোগ পেয়েছিল ফ্রান্সের ক্লাবটিও। কিন্তু ফরোয়ার্ডরা সেই সুযোগ কাজে লাগাতে না পাড়ার খেসারত দিতে হল লিয়ঁকে।এই জয়ের ফলে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পৌঁছে গেল বায়ার্ন। তাঁদের লক্ষ্য হবে ষষ্টবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা। এর আগে ছ’বার বা তার বেশিবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে মাত্র ৩টি ক্লান।

আরও পড়ুন: ভারত ও হিন্দু বিরোধী ‘কমলা’কে নিয়ে আদিখ্যেতা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পোলিশ স্ট্রাইকারের গোলসংখ্যা এখন ১৫। তাঁর সামনে শুধু ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। ২০১৩-১৪ মরসুমে ১৭ গোল করেছিলেন ‘সিআর সেভেন’। ২০১৫-১৬ মরসুমে ১৬ গোল করেছিলেন রোনাল্ডো। পর্তুগিজ তারকাকে টপকে যাওয়ার জন্য ফাইনাল ম্যাচ পাচ্ছেন লেওয়ানডস্কি।

Related Articles

Back to top button
Close