fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ছটপুজোর আগে দিনহাটার বিভিন্ন বাজারে পুজোর নানা সামগ্রী কিনতে উপচে পড়া ভিড়

নিজস্ব সংবাদদাতা, দিনহাটা: দুর্গাপুজো, কালীপুজো পর এবার ছট পুজোকে ঘিরে শেষ লগ্নে প্রস্তুতি  চলছে। শুক্রবার দিনহাটা শহরের থানার দিঘিতে প্রতিবছরের মতো এবছরও ছট পুজো অনুষ্ঠিত হবে। বিহারী সম্প্রদায়ের মধ্যে মূলত এই পুজো হয়ে থাকে। ছটপুজোর আগে বৃহস্পতিবার দিনহাটার বিভিন্ন বাজারে পুজোর নানা সামগ্রী কিনতে ভিড় উপচে পড়ে। প্রতিবছরের মতো এবছরও  দিনহাটা শহরের থানার দিঘিতে বিকালে সূর্য প্রণামের মধ্য দিয়ে ছট পুজো শুরু হবে। এই পুজোকে ঘিরে ইতিমধ্যে  থানার দিঘীকে বাঁশ ও কাঠের পাটাতন করে দেওয়া ছাড়াও চারদিকে আলোকমালায় সাজিয়ে তোলা হয়েছে।

প্রতিবছর পুরসভার পক্ষ থেকে থানার দিঘীকে সাজিয়ে তোলা হয়। এই পুজোর আগের দিন বৃহস্পতিবার সকালে পুজোর সামগ্রী কিনতে দেখা যায় ছট ব্রতীদের। বিভিন্ন রকম ফল থেকে শুরু করে বাঁশের ডালি  সহ নানা সামগ্রী কিনতে দেখা যায় তাদের। ফল থেকে শুরু করে বিভিন্ন রকম সামগ্রীর দাম অনেকটাই বেশি থাকলেও পুজোয় আরাধনায় খামতি রাখতে চাননা ছট ব্রতীরা। এদিকে এবছর করোনা আবহে ছটপুজো, অন্যান্য পুজোর মত যাতে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে করার জন্য পুরসভা ও প্রশাসনের মানুষের কাছে আহ্বান জানানো হয়। পাশাপাশি দিনহাটা বিহারী জনজাগরণ মঞ্চ ছট পুজো কমিটির পক্ষ থেকে সচেতনতা প্রচার করা হয়।

দিনহাটা পৌরসভার কো-অর্ডিনেটর গৌরীশংকর মহেশ্বরী বলেন, প্রতিবছর থানার দিঘিতে ছট পুজো হয়। ছট ব্রতীদের  জলে নেমে পুজো করতে যাতে কোনরকম সমস্যার মধ্যে না পড়তে হয় সেই জন্য পুরসভার পক্ষ থেকে থানার দিঘীকে বিশেষ ভাবে সাজিয়ে তোলা হয়েছে। বাঁশের ব্যারিকেড ও কাঠের  পাটাতন তৈরী করা ছাড়াও আলোক মালায় সাজিয়ে তোলা হয়েছে। পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারপার্সন  বিধায়ক উদয়ন গুহ বলেন,”সরকারি বিধি-নিষেধ মেনে ছট পুজো হবে। সেভাবেই প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close