fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পিছন থেকে টেনে ধরা হচ্ছে, স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পাচ্ছি না, বিস্ফোরক বিশ্বানাথ পাড়িয়াল

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: রাজনৈতিকভাবে সমস্যাকে ইচ্ছাকৃত জিউয়ে রাখা হচ্ছে। স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পাচ্ছি না। কাজের ক্ষেত্রে পিছন থেকে টেনে ধরছে। দুর্গাপুর সগড়ভাঙায় বেসরকারী কারখানায় নিয়োগ অশান্তিকে ঘিরে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ তুললেন এবার দুর্গাপুর পশ্চিমের বিধায়ক তথা আইএনটিটিইউসির পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি বিশ্বনাথ পাড়িয়াল।

প্রসঙ্গত, দুর্গাপুর সগড়ভাঙায় এক বেসরকারী ইস্পাত কারখানায় শ্রমিক নিয়োগকে ঘিরে বছরখানেক ধরে অশান্তি চলছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, স্থানীয়দের সুযোগ না দিয়ে বহিরাগতদের নিয়োগ করা হচ্ছে। তার প্রতিবাদে দফায় দফায় কারখানার গেটের কাছে আন্দোলন চলছে। ঘটনায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বও প্রকাশ্যে এসেছে। সম্প্রতি লকডাউনের পর আবার স্থানীয়দের কাজের দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়েছল। সোমবার ওই কারখানায় বহিরাগতরা কাজে যোগ দিতে আসলে বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয়রা।

কারখানার ওই নিয়োগ সমস্যাকে ঘিরে আইএনটিটিইউসির পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি তথা দুর্গাপুর পশ্চিমের বিধায়ক বিশ্বনাথ পাড়িয়াল বলেন,” গত দু বছর ধরে স্থানীয়রা প্রবল উৎসাহে আছে কাজ পাবে। কিন্তু দেখছি বহিরাগতরা কাজ পাচ্ছে। স্থানীয়রা বঞ্চিত হচ্ছে। ভোটের বাক্সেও প্রতিফলন হচ্ছে। শীর্ষনেতৃত্বকে বলেছি। পজেটিভ কিছু হয়নি।” তিনি আরও বলেন,” এধরনের ঘটনা চলতে থাকলে, স্থানীয়রা কাজের সুযোগ না পেলে নেগেটিভ প্রভাব পড়বে। ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনেও নেগেটিভ প্রভাব পড়বে।”

তিনি বলেন,” এরকম সমস্যা দুর্গাপুরের সব কারখানায়। এটা বন্ধ হওয়া উচিত। সমস্যাটা সমাধান করা উচিত ছিল। ইচ্ছাকৃত এই সমস্যা জিইয়ে রাখা হচ্ছে। রাজনৈতিকভাবে নিজেদের ব্যাক্তিগত ক্ষুদ্র স্বার্থ চরিতার্থ করতে এই সমস্যা জিইয়ে রাখতে চায়ছে। যারা জিইয়ে রাখতে চায়ছে তারা দলের ভাল চায় না। দলের ক্ষতি করছে।” প্রশ্ন, আইএনটিটিইউসির জেলা সভাপতি হয়েও কেন ওই সমস্যা সমাধান করতে পারছে না? প্রশ্ন করা হলে বিশ্বনাথবাবু বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে বলেন, “কাজের ক্ষেত্রে কেউ পিছন থেকে টেনে ধরছে। স্বাধীনভাবে কাজ করতে পাচ্ছি না। স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারলে এই সমস্যা অনেক আগেই সমাধান হয়ে যেত।” বিশ্বনাথবাবুর এই বিস্ফোরক অভিযোগে চরম অস্বস্তি রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস।

Related Articles

Back to top button
Close