fbpx
কলকাতাদেশহেডলাইন

সাম্প্রদায়িক মন্তব্যে সাজা! নাড্ডাকে ধন্যবাদ বাংলার ইমামদের

মোকতার হোসেন মণ্ডল: ‘সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করলে কড়া শাস্তি’! দলীয় নেতা কর্মীদের প্রতি বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার নির্দেশকে ধন্যবাদ জানিয়ে খোলা চিঠি দিয়েছে বেঙ্গল ইমাম এসোসিয়েশন।

ওই সংগঠনটির চেয়ারম্যান মুহাম্মদ ইয়াহিয়া জানান, বিজেপির কেন্দ্রীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা ‘সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করলে কড়া শাস্তি’ নিয়ে দলীয় নেতা কর্মীদের যে নির্দেশ দিয়েছেন তা অসাধারণ। হ্যাঁ, অসাধারণ!’ চিঠিতে বেঙ্গল ইমাম এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান জেপি নাড্ডাকে উদ্দেশ্য করে লিখেছেন,’আপনার দল বিজেপি প্রতিষ্ঠার পর থেকে এত বলিষ্ঠ বক্তব্য কাউকে রাখতে দেখিনি। সময় বলবে, এটা জুমলা ছিল কিনা, নাকি অন্য কারো চাপে পড়ে একটু মলম লাগাবার চেষ্টা করলেন। তবুও বলবো, আপনি ঐতিহাসিক, অসাধারণ, ভারতের প্রকৃত রাজনৈতিক নেতার মতো বক্তব্য রেখেছেন। কথায় আছে, ‘ঝুটা হ্যায় ইয়া সহি, প্যার তো কর’। ঝুটা না সহি, সে সময় বলবে, ভবিষ্যত বলবে। তাই আপনার এখনকার এই বক্তব্য- ‘সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করলে কড়া শাস্তি ‘-এটাকে স্বাগত না জানিয়ে পারি না।”

 

চিঠিতে আরও লেখা হয়েছে, ‘আমরা জানি বিজেপির উত্থান মুসলিম বিদ্বেষের ঘৃণা দিয়ে। গোধরা থেকে দিল্লী। তারপরও গঙ্গা দিয়ে প্রচুর জল বয়ে গেছে। আজও বয়ে চলেছে। তারপরও, না আপনার বক্তব্যকে স্বাগত না জানিয়ে পারিনি। আবার বলছি, আপনার বক্তব্য অসাধারণ, ঐতিহাসিক, প্রকৃত রাষ্ট্রনায়কের মতো কথা।” মুহাম্মদ ইয়াহিয়া আরও লিখেছেন, ‘মাননীয় শ্রী নাড্ডা, আপনি জানেন, ভারতবর্ষের মানুষ আপনাদের ভোট দিয়েছিলো ‘বিকাশের’ কথা শুনে, উন্নয়নের স্বপ্নে। কিন্তু বাস্তবে ‘বিকাশের’ চেয়ে আমরা দেখলাম আর পেলাম আখলাক, জুনায়েদ, আফরাজুল, তবরেজদের লাশ। এদের লাশ বানানোর পরিবর্তে অপরাধীরা প্রকাশ্যে কি পুরস্কার পেয়েছে, ভারতবাসী তাও জানে। সাংবিধানিক পদে বসে, রাজ্যপাল, মন্ত্রীদের, এমপি, এমএলএ দের বিষাক্ত বাণী মানুষের মনকে কলুষিত করেছে। না, আমরা দোষ দিচ্ছি না। ভারতের মানুষ মোটামুটি বুঝেই নিয়েছিল, বিজেপি মানেই পাকিস্তান, হিন্দু, মুসলিম, মন্দির, মসজিদ। এর বাইরে ‘বিকাশ’ বলে আর কিছু নেই। আপনি আশার আলো দেখিয়েছেন। যখন সব দিকে অন্ধকার ছেয়ে যাচ্ছে, যখন দেশের প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত পোশাক দেখে অপরাধীদের চিনতে পারার কথা বলেন, সেই সময় দাঁড়িয়ে আপনার এমন বক্তব্য আমাদের সব ভাবনাকে তছনছ করে দিল। হয়তো, আপনাকে রাজনৈতিক বলি করা হতে পারে। আপনি যদি কাল বিজেপি থেকে বিতাড়িতও হন, আপনি কোটি কোটি ভারতবাসীর যে হৃদয় জিতে নিয়েছেন, তা ইতিহাসে সোনার অক্ষরে লেখা থাকবে। যখন, সবদিকে অন্ধকার ছেয়ে যাচ্ছিল, প্রচন্ড ঝোড়ো হাওয়ার মাঝেও আপনি অন্ততঃ একটা বাতি জ্বালাবার চেষ্টা করেছিলেন, সম্প্রীতির বাতি, যেটি ছাড়া আর অন্ধকার থেকে আলোর পথ ভারতবাসী পাচ্ছিল না। কবিগুরুর কথা দিয়ে শেষ করবো ‘ পূর্বাচলের দিকে তাকিয়ে বললেম, মানুষের উপর বিশ্বাস হারানো পাপ

Related Articles

Back to top button
Close