fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

ত্রাণ বিলির সময়ে প্রহৃত ভারত সেবাশ্রম সংঘের কর্মীরা, অভিযুক্ত তৃণমূল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনের মাঝে দুঃস্থ মানুষদের মাঝে ত্রণ বিলির সময়ে ভারত সেবাশ্রম সংঘের কর্মীদের উপরে চালানো হল হামলা। অভিযোগ, তৃণমূল কাউন্সিলরের নেতৃত্বে তাঁর অনুগামীরা এই হামলা চালিয়েছে। পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কলকাতার কসবা এলাকায়। জানা গিয়েছে, লকডাউন জারি হওয়ার পর থেকেই ওই এলাকায় ত্রাণ বিলি করছে ভারত সেবাশ্রম সংঘ। ওই প্রতিষ্ঠানের পতাকাতলেই নিয়মিত গরিব মানুষদের মাঝে নানাবিধ প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিলি করার কাজ চলছিল।

কিন্তু এদিন ভারত সেবাশ্রম সংঘের সেই সকল কর্মীদের বাধা দেন স্থানীয় ৬৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সলির বিজনলাল মুখোপাধ্যায়। অভিযোগ করা হয়েছে কাউন্সিলরের অনুগামীরা ত্রাণ বিলি করতে থাকা ব্যক্তিদের ব্যাপক মারধোর করে। যাতে জখম হয়েছেন সিমটন মান্না এবং সঞ্জীব বোস নামের দুই ব্যক্তি। কাউন্সিলরের বিরধিতায় এদিন ত্রাণ বিলি করতে পারেনি ভারত সেবাশ্রম সংঘের প্রতিনিধিরা।

 

 

এই বিষয়ে ইমেল মারফত কলকাতা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন সিমটন মান্না। সেখানে কাউন্সিলর বিজনলাল মুখোপাধ্যায়কে অভিযুক্ত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে আরও বলা হয়েছে যে কাউন্সিলরের অনুগামী সুরজিৎ রায় ত্রাণ বিলির সময়ে ভারত সেবাশ্রম কর্মীদের মারধোর করেছে।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত ব্যক্তিরা রাষ্ট্রীয় স্ব্যং সেবক সংঘের সদস্য এবং বিজেপি সমর্থক। মূলত সেই কারণেই তাঁদের ত্রাণ বিলিতে বাধা দিয়েছে তৃণমূল। বিজেপি যোগের বিষয়টি মেনে নিয়েছে অভিযোগকারীরা। তাঁদের বক্তব্য, “আমাদের ব্যক্তিগত পরিচয় যেটাই হোক না কেন তার সঙ্গে এই ত্রাণ বিলির কী সম্পর্ক? কিন্তু কাউন্সিলর সরাসরি বলে দিলেন যে বিজেপি এবং আরএসএস-র লোকেদের কোনও ত্রাণ বিলি করতে দেবেন না।”

 

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে যে ত্রাণ বিলির কাজ চলছে তা ভারত সেবাশ্রম সংঘের ব্যানারেই হচ্ছে এবং এর সঙ্গে বিজেপি বা রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের কোনও সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছেন অভিযোগকারীরা। পুলিশের কাছে পাঠানো অভিযগপত্রে নিজেদের বিজেপি যোগের কোথাও উল্লেখ করেছেন অভিযোগকারীরা।

Related Articles

Back to top button
Close