fbpx
কলকাতাহেডলাইন

ভুবনেশ্বরের জেলে মৃত্যু বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থা আইকোর কর্তা অনুকূল মাইতি

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: তিন বছরের বেশি সময় ধরে ওড়িশার ভুবনেশ্বরের ঝাড়পরা জেলে বন্দি ছিলেন আইকোর কর্তা অনুকূল মাইতি। শনিবার রাতে ওই জেলেই আচমকা অসুস্থ হয়ে মৃত্যু হল ওই চিটফান্ড মালিকের। অনুকূলের পরিবারের দাবি, সম্প্রতি কটক হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছিলেন অনুকূল। কিন্তু জামিনের শর্ত হিসাবে প্রয়োজনীয় বন্ডের টাকা জমা দিতে না পারায় জেল থেকে ছাড়া পাননি তিনি।

অথচ এই অনুকূল মাইতিকেই ২০১৭ সালে বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থার মাধ্যমে বাজার থেকে কোটি কোটি টাকা তোলার অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করেছিল সিবিআই। তার আগে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডিও ২০১৫ সালে গ্রেফতার করেছিল পূর্ব মেদিনীপুরের এই চিটফান্ড সংস্থার মালিককে। পরে সে মামলার হস্তান্তর নেওয়া ছাড়া পৃথকভাবে মামলা করেছিল সিবিআই। সিবিআইয়ের দাবি, আইকোর বেআইনি ভাবে পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা, ঝাড়খণ্ড এবং ওড়িশা-র কয়েক লক্ষ লগ্নিকারীর কাছ থেকে প্রায় ৩০০০ হাজার কোটি টাকা তুলেছিল। কয়েক মাস আগেই জামিনে মুক্তি পেয়েছেন অনুকূলের স্ত্রী কণিকা। একইসঙ্গে এই মামলায় জামিন পেয়েছেন অন্যান্য ধৃতরা। কিন্তু একসময় কোটি কোটি টাকার মালিক হওয়া সত্বেও জামিনের টাকা দিতে না পেরে জেল থেকে ছাড়া পাননি অনুকূল।

কারা দফতর সূত্রে খবর, জেলে থাকাকালীন বেশ কয়েকবার অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন অনুকূল মাইতি। হাইপ্রেশার ও ডায়াবেটিসের সমস্যা তার আগে থেকেই ছিল। এর আগেও বেশ কয়েক দফা তাঁকে হাসপাতালেও ভর্তি করতে হয়। শনিবার রাতে তিনি ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার পর তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

Related Articles

Back to top button
Close