fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দশমীর রাতে বিজেপি কর্মীকে গুলি করে খুন, পরিবারের পাশে সাংসদ নিশীথ প্রামানিক-সহ বিজেপির প্রতিনিধিদল

নিজস্ব প্রতিনিধি, দিনহাটা: দশমীর রাতে দিনহাটার বিজেপি কর্মীকে গুলি করে খুনের ঘটনার পর মৃত ওই কর্মীর বাড়িতে গেলেন সাংসদ নিশীথ প্রামানিক সহ বিজেপির এক প্রতিনিধিদল। মঙ্গলবার দুপুরে দিনহাটা সিতাই ব্লকের ৫৩৮ সিঙিজানী গ্রামে যান সাংসদ সহ বিজেপির প্রতিনিধি দল। ওই প্রতিনিধি দলে ছিলেন সাংসদ নিশীথ প্রামানিক ছাড়াও বিজেপির কোচবিহার জেলা সভাপতি মালতী রাভা, জেলা সম্পাদক সুদেব কর্মকার, যুব মোর্চার অজয় সাহা, মহিলা মোর্চার জেলা নেতৃত্ব সহ অন্যান্যরা।

এদিন ওই বাড়িতে গিয়ে পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেন বিজেপি নেতৃত্ব। দলের ওই কর্মীকে নৃশংস ভাবে খুন করা হয়েছে বলেও অভিযোগ আনেন তারা। এদিকে এই ঘটনার সাথে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেন তৃণমূল নেতৃত্ব। ওই ব্যক্তির মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে বিজেপি বলে পাল্টা অভিযোগ আনে তৃণমূল।

এদিকে এদিন মৃত ওই কর্মীর বাড়িতে গিয়ে তাদের পরিবারের লোকেদের সঙ্গে কথা বলে বিজেপি। পরিবারের একমাত্র উপার্জনশীল ব্যক্তিকে যেভাবে গুলি করে খুন করা হয় তা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না বলেও তীব্র ধিক্কার জানানো হয় বিজেপির তরফে। বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামানিক বলেন, “দশমীর রাতে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা দলের কর্মী রুহিদাস বিশ্বাসকে গুলি করে খুন করে।” তিনি আরও বলেন, “দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় পুজো হয়ে আসছে। দশমীর দিন প্রতিমা বিসর্জনের আগেই যেভাবে দলের কর্মীকে খুন করা হয়েছে অভিযুক্তদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে তারা আন্দোলন গড়ে তুলবেন।”

ওই পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি রুহিদাস বিশ্বাস। তাকে নৃশংসভাবে খুন করায় কিভাবে চলবে পরিবার, তা নিয়েও তারা প্রশ্ন বিজিপি সাংসদ। এই পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেন সাংসদ নিশীথ প্রামানিক থেকে শুরু করে বিজেপি নেতৃত্ব। তিনি বলেন, তৃণমূল কংগ্রেসের রাজত্বকালে কোথাও বিজেপি কর্মীদের খুন আবার কোথাও ধর্ষণের ঘটনা প্রতিদিনই ঘটে চলছে। পশ্চিমবঙ্গের শাসন ব্যবস্থা তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। রাজ্যের শাসন ব্যবস্থা ধীরে ধীরে ভেঙ্গে পড়ছে। রাষ্ট্রপতি শাসন অবিলম্বে প্রয়োজন। এই ঘটনায় পরিবারের পাশে এসে আমরা দাঁড়িয়েছি। যাকে হত্যা করা হয়েছে সেই দোষীদের যাতে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হয় সেজন্য আমরা প্রশাসনের দ্বারস্থ হব।

বিজেপির কোচবিহার জেলা সভাপতি মালতি রাভা বলেন, রাজ্যের সরকার বর্তমানে খুন-ধর্ষণের সরকারের পরিণত হয়ে উঠেছে। বিজেপি কর্মীদের নানাভাবে খুন করার মধ্য দিয়ে ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা করছে তৃণমূল। মানুষ এদের উপযুক্ত জবাব দেবে। তৃণমূলের সিতাই কেন্দ্রের বিধায়ক জগদীশচন্দ্র বর্মা বসুনিয়া বলেন, “রুহিদাস বিশ্বাসের মৃত্যু পারিবারিক গোলমালের জের। ওই ব্যক্তির মৃত্যুকে নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে বিজেপি।”

Related Articles

Back to top button
Close