fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনায়, কালনায় পথ অবরোধ, বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কালনা: কালনায় বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনায় রবিবার পথ অবরোধ করে দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি তুলল বিজেপির জেলা ও রাজ্য নেতৃত্ব। দফায় দফায় টায়ার জ্বালিয়ে এদিন বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মীরা। বিক্ষোভে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির জেলা পর্যবেক্ষক সুবীর নাগ, বর্ধমান পূর্ব জেলা সভাপতি কৃষ্ণ ঘোষ, সুশান্ত পান্ডে, সুদীপ্ত রায়, ধনঞ্জয় হালদার সহ অন্যান্য নেতৃত্ব। পাশাপাশি এদিন তারা মৃতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন ও পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কালনার পিন্ডিরা পঞ্চায়েতের পাথরঘাটা এলাকার বাসিন্দা রবিন পালের খুনের ঘটনায় কালনা থানায় ১৫ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন মৃতের ভাই দানু পাল। তার অভিযোগ, গত শনিবার সকালে তার দাদা রবিন পাল নিজের বাড়িতেই কাজে ব্যস্ত ছিলেন।বিজেপি করার অপরাধে তার দাদার বাড়ির সীমানায় থাকা একটি গাছ কাটার চেষ্টা করায় তার দাদা এই ঘটনার প্রতিবাদ করে।তখন তার দাদাকে বাড়ি থেকে বের করে এনে বাঁশের লাঠি দিয়ে পেটায় ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ মারে তৃণমূল আশ্রিত কয়েকজন দুষ্কৃতি।

উপপ্রধান সুকুমার বাগের নেতৃত্বে এই ঘটনা ঘটেছে বলে দানু পাল অভিযোগ করেন। যদিও তৃণমূল নেতৃত্ব এই ঘটনার কথা অস্বীকার করে। অভিযোগে পিন্ডিরা পঞ্চায়েতের উপপ্রধান সুকুমার বাগেরও নাম রয়েছে। এই ঘটনার তদন্তে নেমে এখনও পর্যন্ত কালনা থানার পুলিশ পাঁচজনকে গ্রেফতার করলেও এখনও অধরা ওই উপপ্রধান। ধৃতরা হোল তপন পাল, তপন পাত্র, মমতা পাত্র, মহানন্দ পাল, তাপস পাল। রবিবার তাদের কালনা আদালতে তোলা হলে প্রথম দুজনকে নয়দিনের পুলিশ হেপাজতে নেওয়া হয়। অন্যদিকে এদিন বিজেপির জেলা ও রাজ্য নেতৃত্ব মৃত বিজেপি কর্মীর পাথরঘাটার বাড়িতে যান।মৃতের স্ত্রী ও নাবালিকা দুই মেয়ের সাথে কথা বলেন।পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

এরপরই রবিবার কালনার পান্ডুয়া মোড় এসটিকেকে রোড পথ অবরোধ করে বিজেপি নেতৃত্ব। প্রায় আধঘন্টা ধরে পথ অবরোধ চলে। রাস্তার উপর টায়ার জ্বালিয়ে বিজেপি কর্মীরা এই ঘটনায় ক্ষোভ উগড়ে দেন ও তৃণমূলের উপপ্রধানকে গ্রেফতারের দাবি তোলেন। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এদিন প্রচুর পুলিশ মোতায়েন ছিল বিভিন্ন এলাকায়। এই বিষয়ে বিজেপির জেলা সভাপতি কৃষ্ণ ঘোষ বলেন, ‘কালনায় বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনায় তৃণমূলের উপপ্রধান সহ অন্যান্য অভিযুক্তদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে। মৃতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছি আমরা। ওনার মেয়ের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয় মহাশয়। সবরকম ভাবে ওই পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দেওয়া হয়।রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলে এরপরের আন্দোলন কর্মসূচি তৈরী করা হবে।’

Related Articles

Back to top button
Close