fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সাংবাদিক বৈঠক করে তৃণমূল নেতার তোলা আদায়ের  ভিডিও প্রকাশ্যে আনল বিজেপি

পিন্টু কুন্ডু: ঠিকাদার সংস্থার গুলির কাছ থেকে কাটমানি তোলার অভিযোগ উঠল জেলা পরিষদের মেন্টরের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার বালুরঘাটে বিজেপির জেলা কার্যালয়ে এক সাংবাদিক বৈঠক করে দুটি ভিডিও ক্লিপিং প্রকাশ্যে এনে এমনই দাবি করেছেন সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। বিজেপির প্রকাশিত ওই ভিডিওতে নির্মল বাংলা মিশন প্রকল্পের শৌচালয় তৈরিতেও কাটমানি নিয়েছে শুভাশিষ ওরফে সোনা পাল বলে প্রমান সহকারে অভিযোগ আনে বিজেপি। যদিও এদিন নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতা তথা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের মেন্টর শুভাশিস পাল ওরফে সোনা।

[আরও পড়ুন- রাম মন্দিরে তাণ্ডব চালাল দুষ্কৃতীরা, রামের মূর্তি ভাঙচুর]

উল্লেখ্য, দক্ষিণ দিনাজপুরে বিভিন্ন এলাকাকে আলাদা আলাদা ভাবে নির্মল এলাকা হিসেবে ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। এই প্রকল্পের মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি শৌচালয় তৈরীর কাজের দায়িত্ব দেওয়া হয় বিভিন্ন এনজিও গুলিকে। বিজেপির দাবি, ভিডিও ক্লিপিংএ দেখা যাচ্ছে তৃণমূল নেতা সোনা পাল কোনও এক ঠিকাদার সংস্থার কাছে বিভিন্ন সরকারি কাজের জন্য টাকার দাবি করছেন। এদিন বিজেপির সাংবাদিক বৈঠকে এই পর্দা ফাঁস হতেই কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েছে শাসক শিবির। জেলা তৃণমূল সভাপতি অর্পিতা ঘোষের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ওই নেতাদের সরকারী কাজে এমন কাটমানি আদায়ের ভিডিও ভাইরাল হতেই প্রশ্নের মুখে পড়েছেন খোদ জেলা সভাপতিও। পুরো ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি জানিয়েছেন বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার।

সুকান্ত মজুমদার বলেন, জনমুখী বিভিন্ন কাজে তৃণমূল নেতারা যে অবৈধভাবে তোলা আদায় করে তার প্রমাণ মিলেছে দুটি ভিডিও ক্লিপে। জেলা তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি গৌতম দাস বলেন, বিষয়টি না দেখে তিনি কোন মন্তব্য করতে পারবেন না। তবে সত্যিই যদি কোনো অন্যায় হয়ে থাকে তাহলে দল উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। জেলা তৃণমূল সভাপতি অর্পিতা ঘোষ জানিয়েছেন, দলের নাম ভাঙিয়ে যারা নিজেদের আখের গোছাচ্ছে তাদের কোন মতেই রেয়াত করা হবে না। কোন অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয় না তৃণমূল কংগ্রেস।

Related Articles

Back to top button
Close