fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কোলাঘাটে প্লাবিত এলাকাগুলি ঘুরে দেখলেন বিজেপির প্রতিনিধি দল, দায়ী করলেন প্রশাসনিক গাফিলতিতেই

বাবলু ব্যানার্জি, কোলাঘাট: আজও রূপনারায়ন নদীর জোয়ারের তীব্রতা ছিল ভয়ংকর। গতকাল যে যে স্থান দিয়ে জল প্রবেশ করেছিল, কমবেশি সেই স্থান দিয়েই জল প্রবেশ করতে দেখা গেছে শুক্রবারও কোলাঘাটে।

এই প্লাবিত এলাকাগুলি পরিদর্শন করলেন ভারতীয় জনতা পার্টির প্রতিনিধি দল। প্রতিনিধি দল সরাসরি অভিযোগের তীর ছুড়ে দিলেন প্রশাসনের গাফলতির দিকে। গতকাল কৌশিকী অমাবস্যায় জোয়ারের তোড়ে কোলাঘাটের বিস্তীর্ণ এলাকা সুইলিশ ও তার পার্শ্ববর্তী কাটা বাঁধ দিয়ে জল প্রবেশ করে প্লাবিত করে দেয়।

এখনো পর্যন্ত কোলাঘাটের নিচু এলাকায় এক কোমর সমান জল দাঁড়িয়েে। স্বভাবতই কোলাঘাট শহরতলির মানুষজন থেকে দু-তিনটি গ্রামের মানুষদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আজ এলাকার সার্বিক পরিস্থিতির উপর নজর রেখে ভারতীয় জনতা পার্টির প্রতিনিধি দল প্লাবিত এলাকার মানুষজন দের সঙ্গে দেখা করলেন।

প্রতিনিধি দলে ছিলেন বিজেপির রাজ্য নেতা অনুপম মল্লিক, জেলা সভাপতি নবারুন নায়েক, জেলা সম্পাদক দেবব্রত পট্টনায়েক, সংখ্যালঘু মোর্চার জেলা সভাপতি শেখ সাদ্দাম হোসেন, জেলা নেতা রঞ্জিত ভট্টাচার্য্য কোলাঘাট মন্ডল সভাপতি বিবেক চক্রবর্তী সহ ব্লক স্তরের নেতৃত্বরা। রাজ্য ও জেলার নেতৃত্বরা এই সময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকার বার্তা দেন।

অনুপম মল্লিকও নবারুন নায়েক বলেন প্রশাসনের গাফিলতির জন্য আজ কোলাঘাট বাসিদের এই সমস্যার মধ্যে পড়তে হলো। কোলাঘাটের রাস্তা সম্প্রসারণ এর কাজ দীর্ঘদিন ধরে হচ্ছে, কবে শেষ হবে সেই বিষয়টিও অধরা। পাঁশকুড়া সেচদপ্তরের এস ডি ও এর সঙ্গে কথা হয়েছে প্রশাসন বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে দেখবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন। এলাকার মানুষদের সঙ্গে কথা বলার পর কোলাঘাটের পীরতলা বাঁধ পরিদর্শনে যায়। পরিদর্শন করার পর জেলা সভাপতি নবারুণ নায়েক জানান এই বাঁধকে পাকাপোক্ত করার জন্য প্রশাসন কে সক্রিয় ভূমিকা নিতে হবে যা স্থায়ী ভাবে এলাকার মানুষ ভরসা পান।

অন্যদিকে কোলাঘাট ব্লকের দিনানের সামনে রূপনারায়ন নদী বাঁধে প্রায় দশ ফুট ফাটল দেখা দেয় সকালে। আজ সকালে এলাকার মানুষ দেখতে পেয়ে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে। উল্লেখ করা যায় গত বছর এই একই স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছিল। প্রতি বছর একই স্থানে ফাটল দেখা দেওয়ায় এলাকার মানুষ আতঙ্কে।

এই নদী বাঁধে কোনও সময় বড় ধরনের বিপত্তি ঘটলে এলাকার শশয়ে মৌজা জলের তলায় যেমন পড়বে তেমনি কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে জল প্রবেশ করে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের আশঙ্কাও থাকবে। বৃষ্টি আর নদী বাঁধের ফাটল এই দুয়ের যাঁতাকলে কোলাঘাট বাসী এখন শঙ্কিত।

Related Articles

Back to top button
Close