fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি জাত-পাতের রাজনীতি করেনা,সবকা সাথ,সবকা বিকাশে বিশ্বাসী : কাশেম আলী

শ্যামল কান্তি বিশ্বাস: ধর্মীয় তোষণ সহ জাত পাতের রাজনীতিতে বিশ্বাসী নয় বিজেপি।সমাজের সব শ্রেণীর মানুষকে সঙ্গে নিয়ে,দেশের সার্বিক উন্নয়ন ঘটানোই একমাত্র লক্ষ্য ভারতীয় জনতা পার্টির। সবার সাথে সকলের বিকাশ ঘটানোর মধ্যদিয়ে বিশ্বাস অর্জন ই একমাত্র লক্ষ্য ভারত তথা বিশ্বের সর্ববৃহৎ গনতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল বিজেপির। মোদি নেতৃত্বাধীন ভারত আগামী দিনে বিশ্বকে নেতৃত্ব দেবে।আমরা গর্বিত মোদিজী, অমিতজীর মতো নেতৃত্বাধীন দলের একজন সৈনিক হিসাবে,অভিমত বিজেপি সংখ্যালঘু সেলের রাজ্য সহসভাপতি কাশেম আলীর। মোদিজীর নেতৃত্বে দেশ যখন এগিয়ে চলেছে,তখন আমরা পশ্চিমবঙ্গ বাসী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর হঠকারী নানা সিদ্ধান্তে পিছিয়ে পড়ছি, ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন রাজ্যের সংখ্যালঘু সেলের সহ-সভাপতি কাশেম আলী।

আজ এক একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের আচরণে ক্ষুব্ধ রাজ্যের জনগন,অভিমত কাশেম আলীর।এদের অপশাসনে বাংলা আজ পিছিয়ে পড়েছে,রাজ্যে নেই কোন কর্ম সংস্থান,বেকাররা কাজ না পেয়ে ভিনরাজ্য পরিযায়ী শ্রমিক হিসাবে কাজে যেতে বাধ্য হচ্ছে। রাজ্যের কলকারখানা বন্ধ,নিয়োগ বন্ধ, কেন্দ্রের পাঠানো রেশন বন্টনে দূর্নীতি,আমফান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ দের ক্ষতিপূরণ বন্টনে দূর্নীতি,সচ্ছ ভারত প্রকল্পের নাম পাল্টে নির্মল বাংলা, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার নাম পাল্টে বাংলার আবাস যোজনা,আয়ুস্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা থেকে রাজ্যবাসীকে বঞ্চিত করা, কৃষক সমৃদ্ধি  যোজনার সুবিধা গ্ৰহন না করে বাংলার  ৭৬ লক্ষ কৃষকের সঙ্গে প্রতারণা!

আরও পড়ুন: রাতভর খালে পড়ে থাকার পর অবশেষে উদ্ধার পাচার হতে যাওয়া একটি উট

এ হেন হটকারী সিদ্ধান্ত, কোন অবস্থাতেই রাজ্যের মানুষ আর বরদাস্ত করবে না। দিদিমনির কর্মকান্ডের আরো একটি সংস্করণ,তুষ্টিকরণ সহ তোষনের রাজনীতি। মানুষ আর বোকা নেই, সব কিছু দেখতে দেখতে সজাগ হয়ে গেছে,জবাব দেওয়ার জন্য রাজ্যবাসী তৈরি।আসছে দিন, রাজ্যবাসী তৈরি থাকুন ২০২১ এর এর নির্বাচন ই হবে জবাব দেওয়ার সঠিক মঞ্চ বলে অভিমত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সংখ্যালঘু সেলের রাজ্য সহসভাপতি কাশেম আলীর।

Related Articles

Back to top button
Close