fbpx
কলকাতাহেডলাইন

রাজ্যকে অগ্রাহ্য করে সহ উপচার্য নিয়োগ রাজ্যপালের, বিজেপি ম্যান’ তোপ দাগলেন পার্থ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলায় রাজ্যপালের দায়িত্ব নিয়ে আসা ইস্তক রাজ্য সরকারের সঙ্গে একাধিক ইস্যুতে সংঘাতে জড়িয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। কখনও স্বাস্থ্য, কখনও শিক্ষা নিয়ে রাজ্যের কড়া সমালোচনা করেছেন ধনকর। আবারও রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাতে চরমে। এবার রাজ্য সরকারকে এড়িয়ে উচ্চশিক্ষার পদে নিয়োগ করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপচার্য ( প্রশাসনিক ও শিক্ষা) পদে অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে নিয়োগ করেছেন ধনকর। বিষয়টি নিয়ে রাজ্য সরকারের সঙ্গে কোনও আলোচনাই করেননি রাজ্যপাল, এমনই দাবি শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। রাজ্যপালের এই সিদ্ধান্ত মানা হবে না বলে জানিয়েছেন ক্ষুব্ধ শিক্ষামন্ত্রী। পাশপাশি জগদীপ ধনকরকে ‘বিজেপি ম্যান’ বলে তোপও দাগেন পার্থ।

রাজ্যপাল বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য নিয়োগ করেছেন ‘নিয়মবিরুদ্ধ’ ভাবেই এবার এই মর্মেই ক্ষোভ ব্যক্ত করেন শিক্ষামন্ত্রী। পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘এটা খুবই দুঃখজনক। ওনাকে আমরা আমাদের তৈরি একটি তালিকা পাঠাই। কিন্তু উনি নিজের পছন্দের ব্যক্তিকে নিয়োগ করলেন। যার নাম ওই তালিকায় ছিলই না। যারা বিজেপির পরতি নিবেদিত প্রাণ তাঁদেরকেই উনি নিয়োগ করে আসছেন। এটা ঠিক নয়। আমরা এই নিয়োগ মানছি না।’ শিক্ষাদফতরের সূত্রের খবর অনুযায়ী প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী সরকার সবসময় রাজ্যপালকে তিন জনের নামের একটি তালিকা পাঠায়। রাজ্যপাল সেই তালিকা থেকে একজনকে ওই পদে নিয়োগ করেন। এতদিন এই নিয়মেই চলে এসেছে এই নিয়োগ পর্ব। তবে এবার বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য পদে আচার্য জগদীপ ধনকর নিয়োগ করেন প্রাণীবিদ্যা বিভাগের প্রধান গৌতম চন্দ্রকে। যার নাম রাজ্যের পাঠানো তালিকায় ছিল না। এই নিয়েই শুরু হয় তরজা।

আরও পড়ুন: আজ থেকে শুরু মাঝেরহাট সেতুর মূল অংশের কাজ… জুলাইয়ের মধ্যেই সম্পন্ন হতে পারে!

এদিকে, শিক্ষামন্ত্রীর দাবি উড়িয়েছেন রাজ্যপাল। জগদীপ ধনকরের পাল্টা দাবি, ‘যা করেছি, আইন মেনেই করেছি। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের ৯ নম্বর ধারার এক নম্বর উপধারার আইন মেনে অধ্যাপক গৌতম চন্দ্রকে সহ উপচার্য ( প্রশাসনিক ও শিক্ষা) পদে নিয়োগ করা হয়েছে।’এবার বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে রাজ্যকে এড়িয়ে রাজ্যপালের সহ উপাচার্য নিয়োগ ইস্যু ঘিরে সেই সংঘাত যে আরও বাড়ল তা বলাই বাহুল্য।

 

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close