fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিপদে টালিগঞ্জ এর কলাকুশলীদের পাশে বিজেপি

সুজয় অধিকারী: বঙ্গীয় চলচ্চিত্র সংস্কৃতি সংঘ (বিসিএসএস) টালিগঞ্জ ষ্টুডিও পাড়ার একমাত্র সংগঠন, যারা শিল্পী ও কলাকুশলী দের জন্য প্রতি নিয়ত কাজ করে চলেছে। এই সংগঠনের সম্পাদক শ্রী মিলন ভৌমিকের কাছ থেকে জানতে পারলাম যে, ষ্টুডিও পাড়ায় শাসক দলের মদতপুষ্ট যে সংগঠন আছে (ফেডারেশন ) তারা শুধুমাত্র সেইসব শিল্পী ও কলাকুশলীদের দেখছে যারা নাকি সরাসরি তৃণমূল পার্টির সাথে যুক্ত। অথচ ফেডারেশনের সকল বিভাগের সদস্য সংখ্যা প্রায় ৫০০০০ । কিন্তু অফিসিয়ালি সাহায্য পেয়েছে মাত্র ১১০০ । বাকি সদস্যরা যেহেতু বেশিরভাগ বিজেপি অথবা অন্য কোনো দলের সমর্থক, তাই তারা ব্রাত্য। এমতাবস্থায় মিলনবাবু বিজেপির রাজ্যসভাপতি শ্রী দিলীপ ঘোষ মহাশয়কে বিষয় টি জানালে, দিলীপ বাবু দুই গাড়ি ভর্তি প্যাকেট পাঠিয়ে দেন বিসিএসএস এর টালিগঞ্জের অফিসে। সঙ্গে আসেন রাজ্য সাধারণ সম্পাদক শ্রী প্রতাপ ব্যানার্জী মহাশয় এবং রাজ্য লইয়ার সেলের সভাপতি শ্রী ব্রজেশ্বর ঝা মহাশয়।

শ্রী প্রতাপ ব্যানার্জী মহাশয় বলেন, বিজেপি থাকতে কোনোদিন কেউ না খেয়ে মরবে না। এবং মিলন ভৌমিক এর কাজের প্রশংসা করে বলেন, বিজেপি সবসমই শিল্পীদের সম্মান করে। সুতরাং তালিহুঙ্গের কলাকুশলীদের বিপদের দিনে বিজেপি সবসমই পাসে থাকবে। মিলন বাবু আরও বলেন, আগামী সপ্তাহ থেকে শুধু টালিগঞ্জ এর কলাকুশলী নয় টালিগঞ্জ বিধসনসভার অধীনে যতগুলি ওয়ার্ড আছে আমরা শুরু করবো প্রতিটা অভাবী মানুষের পাশে গিয়ে তাদের কষ্টের সমব্যাথী হওয়ার।

আরও পড়ুন: করোনায় ঐক্যবদ্ধ, পরিবেশরক্ষায় কি একজোট হবে বিশ্ব? উঠছে প্রশ্ন

বিসিএসএস এর সদস্যরা ছাড়াও ফেডারেশনের কিছু সদস্য এবং সংলগ্ন ওয়ার্ডের বেশ কিছু লোক এই দিন এসেছিলেন। যাদেরকে সাহায্য করতে পেরে বিসিএসএস নিজেদের ধন্য মনে করছে। ঐদিন উপস্থিত ছিলেন বিজেপির দক্ষিণ কলকাতার জেলা সভাপতি শ্রী মোহন রাও, টালিগঞ্জ মন্ডল ১ এর সভাপতি শ্রীমতি সোমা ঘোষ প্রমুখ। এছাড়াও বিসিএসএস এর সদস্যরা টালিগঞ্জ সংলগ্ন ওয়ার্ড গুলিতে নিয়মিত রান্না করা খাবার ও প্যাকেট পরিবেশন করছে।  যাদের একান্ত প্রয়োজন তাদেরকে ৯৪ ওয়ার্ডের রাখি মিত্র ও দিলীপ চন্দ, ৯৫ ওয়ার্ডের ভাস্কর সোম, মানিক সাহা, ৯৭ ওয়ার্ডের সুশান্ত ভট্টাচার্য,৯৪ ওয়ার্ডের শর্মিষ্ঠা রায়,জয়শ্রী ভট্টাচার্য, মিতা ব্যানার্জী, ১১১ ওয়ার্ডের জয়দীপ প্রমুখ বিশেভাবে উল্লেখযোগ্য।

টালিগঞ্জ পাড়ায় পরিচালক মিলন ভৌমিকের নেতৃত্বে গড়ে উঠেছে একটি প্রতিবাদী, জনদরদি সংগঠন যারা দলীয় রং না দেখে শিল্পী ও কলাকুশলীদের কাজের ব্যবস্থা করছে এবং লকডাউন এর সময় তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে সর্বত্র এই বৃহৎ কর্মযজ্ঞে। বিসিএসএস এর সুরজিৎ দেবনাথ,সুব্রত দে, চন্দন বসু ও সকল সদস্যরা আন্তরিক ভাবে মিলন বাবুর পাশে আছে।

Related Articles

Back to top button
Close