fbpx
দেশহেডলাইন

‘বিজেপি সাম্প্রদায়িকতার ভাইরাস ছড়াচ্ছে’: সনিয়া গান্ধী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইতে বিজেপি সরকারের সঙ্গে একসঙ্গে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়েছিলেন কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গান্ধী। তবে এবার ফের বিজেপিকে খোঁচা দিয়ে আক্রমণে পথে হাঁটলেন কংগ্রেস নেত্রী। দেশজুড়ে করেনা মহামারীর সংকটের সময়েও বিজেপি সাম্প্রদায়িকতার ভাইরাস ছড়াচ্ছে, ঘৃণা ছড়াচ্ছে। মহারাষ্ট্রের পালঘরে সাধু হত্যার ঘটনায় যেভাবে সাম্প্রদায়িকতার রং লাগানোর চেষ্টা হচ্ছে, যা প্রত্যেকের জন্য উদ্বেগের বিষয়।

বৃহস্পতিবার দিল্লির দফতরে একটি কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির একটি জরুরি বৈঠক ছিল। সেই বৈঠকেই দেশজুড়ে বেড়ে চলা করোনভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন সনিয়া। সেইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রীকে বারবার অনুরোধ করেছি যে পরীক্ষা, ট্রেসিং এবং আইসোলেশনের বিকল্প নেই। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে, এ দেশে পরীক্ষার সংখ্যা এখনও অনেক কম।’ তাঁর অভিযোগ, এই মারণ ভাইরাস রুখতে কংগ্রেস যে পরামর্শগুলি দিয়েছিল আগেই, তার অধিকাংশই মেনে চলা হয়নি। লকডাউন ও তার প্রয়োগ নিয়ে সরকার যথেষ্ট মমত্ববোধ ও তত্‍‌পরতাও দেখাতে পারেনি বলে মন্তব্য করেন সনিয়া।

আমাদের যখন ঐক্যবদ্ধভাবে করোনার মোকাবিলা করা উচিত, তখনও বিজেপি সমাজে সাম্প্রদায়িকতা এবং ঘৃণার ভাইরাস ছড়িয়ে চলেছে। এতে আমাদের সামাজিক সৌহার্দের সমূহ ক্ষতি হচ্ছে।’ কংগ্রেস নেতানেত্রীদের পারস্পারিক ভ্রাতৃত্ববোধ ফিরিয়ে আনতে সাধ্যমতো চেষ্টা করার নির্দেশ দিয়েছেন রায়বরেলির সাংসদ। কংগ্রেসের অভিযোগ, রাজনৈতিক সুবিধা তুলতে সাধু মৃত্যুর এই ঘটনায় সুকৌশলে সাম্প্রদায়িক রং লাগানোর চেষ্টা করেছে বিজেপি।

আরও পড়ুন: আজ বিশ্ব বই দিবস, আশা-আকাঙ্খায় বাঙালির বইপ্রীতি

তিনি বলছেন, ‘৩ মে’র পর কি করা উচিত সে সম্পর্কে কোনও চিন্তাভাবনা সরকারের নেই। এরপর যদি আবার লকডাউন করা হয়, তাহলে সেটা আরও বিপজ্জনক হবে।’ সোনিয়ার অভিযোগ, সরকার কিষাণ এবং মজদুরদের কথা ভাবছে না। লকডাউনে ১২ কোটি মানুষ কাজ হারিয়েছেন। এঁদের প্রত্যেকের পরিবারকে অন্তত ৭ হাজার ৫০০ টাকা করে দেওয়া উচিত। রেশন ব্যাবস্থার বাইরে আছেন দেশের প্রায় ১০ কোটি মানুষ। এই কঠিন পরিস্থিতিতে তাঁদের প্রত্যেকের হাতে ১০ কেজি করে খাদ্যশস্য, ১ কেজি ডাল এবং অন্তত ৫০০ গ্রাম চিনি পৌঁছে দেওয়া উচিত।

এই বৈঠকেই করোনার সংক্রমণ রুখতে রাজ্যগুলিকে কেন্দ্রের সঙ্গে বোঝাপড়া বজায় রেখে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। করোনার সংক্রমণ রুখতে এই মুহূর্তে দলের অবস্থান কী হওয়া উচিত তা নিয়ে আলোচনা করেন সোনিয়া-মনমোহনরা। যদিও বিজেপির তরফে সোনিয়া গান্ধীর এই মন্তব্যের পাল্টা প্রতিক্রিয়া এখনও মেলেনি।

Related Articles

Back to top button
Close