fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

 তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের পাগলা কুকুরের সঙ্গে তুলনা করলেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ 

মিলন পণ্ডা, তমলুক (পূর্ব মেদিনীপুর): আহত বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে এসে রাজ্য সরকার ও পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূল নেতা কর্মীদের পাগলা কুকুরের সঙ্গে তুলনা করলেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। ‘তৃণমূল সরকারের আরও সচেতন হওয়া প্রয়োজন রয়েছে। পাড়ার যদি কোনও পাগলা কুকুর ঘোরাঘুরি করে একে অপরকে কামড় দেয় মানুষ বেরিয়ে এসে তার ব্যবস্থা করেন। পাগলা কুকুরের মতন তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীকারী যুবকেরা বিজেপি কর্মী সর্মথকদের উপর নির্মম ভাবে অত্যাচার চালাচ্ছে। এরপর ওদের হয়তো জনরোষের শিকার হতে হবে।‘ পূর্ব মেদিনীপুরে এসে এমনই মন্তব্য করলেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ।

 

 

 

প্রসঙ্গত বুধবার ভগবানপুর এক ব্লকের শিমুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের অফিসে ডেপুটেশন দিতে গিয়ে আক্রান্ত হন বিজেপি মন্ডল সভাপতি, পঞ্চায়েত সদস্য সহ একাধিক বিজেপি কর্মী সমর্থক। তাদেরকে উদ্ধার করে ভগবানপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বিজেপি মন্ডল সভাপতি স্বপন প্রধান, অশোক প্রামাণিক, শম্ভু বার্গ তিনজনকে উদ্ধার করে রাতেই তমলুক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনায় ভগবানপুর থানার বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করেন। বিজেপির পক্ষ থেকে ভগবানপুরের বিধায়ক অর্ধেন্দু মাইতির ভাই এলাকায় তৃণমূলের উপপ্রধান  দীপেন্তু মাইতি সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও এখনো পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি। বৃহস্পতিবার দুপুরে আহত বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে দেখা করতে ছুটে আসেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কাঁথি সংগঠনীক বিজেপি সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী, তমলুক সংগঠনীক জেলার নবারুণ নায়ক, কাঁথি সংগঠনীক জেলার সাধারণ সম্পাদক তাপস দোলাই সহ অন্যন্য বিজেপি নেতৃত্বরা।

 

 

এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিজেপি নেএী ভারতী ঘোষ বলেন, ‘আমি সাবধান করছি। বিশেষ করে পুলিশকে বলব আপনারা যদি হাত গুটিয়ে পায়ের উপর পা দিয়ে এয়ার কন্ডিশনের মধ্যে বসে থাকবেন, আর বলবেন এখানে কিছু হয়নি। তবে কিন্তু মনে রাখবেন আমাদের হিসেবের খাতায় আপনার নাম লিখে নিচ্ছি। ক্ষমতায় আসার পর ২০২১ সালে আইনগতভাবে ব্যবস্থা হবে।” এদিন ভারতীদেবী রাজ্য পুলিশকে আক্রমণ করে বলেন, “তৃণমূল সরকার তো চলে যাবে, কিন্তু পুলিশ থেকে যাবে। আপনাদের যদি দম থাকে আমার মতো চোখে চোখ রেখে চাকরি ছেড়ে বেরিয়ে যান। একদম না থাকলে ইউনিফর্ম পরে আপাতত এই আসামীদের গ্রেফতার করুন। না হলে ২০২১ সালে আপনাদের ব্যবস্থা করব।” তিনি আরও বলেন, “কোনও ঘটনাতেই কাউকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। উল্টে তাদের দোষীদের জামিনের পুলিশ সাহায্য করছে। আমি শুনেছি এখানকার মহিলা পুলিশ সুপার লেখাপড়া জেনে আইপিএস হয়ে এসেছেন। আমি আবার বলছি আপনি আপনার কর্তব্য করুন। আপনি আসামীদের ধরুন। এমন কিছু করবেন না যাতে আপনার নাম আমার খাতায় তুলতে হয়।এমনকি আপনাকে ইন-অ্যাকশনের জন্য হাইকোর্টে কিংবা সুপ্রিম কোর্টে জবাবদিহি করতে হল।”

 

Related Articles

Back to top button
Close