fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রেশনের চাল চুরির অভিযোগে উত্তাল নদিয়া, ন্যায় বিচারের আশায় শেষ সিঁড়ি পর্যন্ত পৌঁছানোর হুঁশিয়ারি সাংসদ জগন্নাথ সরকারের

শ্যামল কান্তি বিশ্বাস, রানাঘাট: করোনা আবহে জনজীবন বিপর্যস্ত। প্রান্তিক মানুষেরা কাজ হারিয়ে পরিবারবর্গ নিয়ে অনাহারে, অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে। অন্যদিকে বেঁচে থাকার সাময়িক বিকল্প পথ, রাজ্যের রেশনিং ব্যবস্থায় শাসক তৃণমূলের মদতে দূর্নীতি! এ কোনও অবস্থাতেই বরদাস্ত নয় বলে হুঙ্কার দিয়েন বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার।

তার আরও অভিযোগ, আমরা ভেবেই ছিলাম, অদৃশ্য সংক্রমণ ব্যাধি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায়, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে এক সঙ্গে লড়বো কিন্তু না মুখ্যমন্ত্রী মুখে সৌজন্যের কথা বললেও বাস্তবে তা মানছেন না।দলীয় কর্মীদের লেলিয়ে দিয়ে, আমাদের চলার পথে প্রতিটি পদক্ষেপে বিরোধিতা করছে।পুলিশি হস্তক্ষেপে আমাদের ত্রাণ দিতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। সমাজের কাজ হারা প্রান্তিক মানুষেরা যখন পরিবারবর্গ নিয়ে ক্ষূধার জ্বালায় ছটফট করছে,তখন তাদের আহারের সাময়িক বিকল্প ব্যবস্থা রেশন নিয়ে রাজ্য সরকার ছিনিমিনি খেলছে। এ কোনও অবস্থাতেই মেনে নেওয়া যাবে না। অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে রাজ্যব্যাপী বৃহত্তর আন্দোলনে নামতে ও আমরা প্রস্তুত বলে জানালেন, সাংসদ জগন্নাথ সরকার।

জগন্নাথবাবুর আরও অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রী লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয়ে মুহূর্তে মুহূর্তে টিভির পর্দায় রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে রেশনের খাদ্য সামগ্রী বন্টন বিষয়ক যে বিঞ্জাপন দিচ্ছে,তা সর্বোত্ মিথ্যা। বিঞ্জাপণ অনুযায়ী, খাদ্য সামগ্রী পাচ্ছে না গ্ৰাহকেরা। কেন্দ্রীয় সরকারের বরাদ্দকৃত খাদ্য সামগ্রী ও বন্টণে রাজ্য সরকারের চরম অনিহা।ফলে রাজ্যের সাধারণ মানুষ, তাদের নৈতিক অধিকার থেকে বঞ্চিত। রেশনের চাল চুরি সংক্রান্ত মারাত্মক অভিযোগ আনলেন জগন্নাথ বাবু।

এফ,সি,আই গোডাউন থেকে ডিস্ট্রিবিউটর হয়ে ডিলার পর্যন্ত চাল পৌঁছানোর ক্ষেত্রে একটি বিরাট অসদচক্র সক্রিয়।রাজ্য খাদ্য দপ্তরের কতিপয় কর্মী, পুলিশ প্রশাসনের মুষ্টিমেয় অসদ্ কর্মী এবং তৃণমূল দলের নেতাকর্মীদের একটি বিরাট অংশের জোট সাজসে কেন্দ্রের দেওয়া সরু মিনিকিট চাল ম্যাজিকের মতো পরিবর্তিত হয়ে মোটা চাল হয়ে ঢুকছে রেশন ডিলারের ঘরে। সম্প্রতি রানাঘাট মহকুমার অন্তর্গত হবিবপুর শ্রী কৃষ্ণ রাইস মিলের মালিক কৃষ্ণ সাউকে এই অবৈধ প্রক্রিয়ায় জড়িত থাকার অভিযোগে হাতে নাতে ধরে ফেলেন সাংসদ জগন্নাথ সরকার।

 

পুলিশ চালচোরে অভিযুক্ত শ্রীকৃষ্ণ রাইস মিলের মালিক কৃষ্ণ সাউকে গ্ৰেপ্তার তো দূর অস্ত, উল্টে সাংসদ জগন্নাথ সরকারের বিরুদ্ধে ই সামাজিক দূরত্ব অমান্যের অভিযোগে মামলা রুজু করেছে।ঘটনায় এলাকার সর্বস্তরের মানুষ প্রচন্ড ক্ষিপ্ত। পরিস্থিতি যে পর্যায়ে এগোচ্ছে,তাতে দ্রুত রাজ্য সরকারের কড়া হস্তক্ষেপ জরুরী, অন্যথায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কা প্রবল।

Related Articles

Back to top button
Close