fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

হয় কাজ করুন, না হলে গদি ছাড়ুন! এটাই মানুষের দাবি: বিস্ফোরক রাহুল

রক্তিম দাশ, কলকাতা: ‘মুখ্যমন্ত্রী এখন পালিয়ে যাচ্ছেন। হয় কাজ করুন, না হলে গদি ছাড়ুন। এটাই এখন মানুষের একমাত্র দাবি’। বৃহস্পতিবার এভাবেই রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা।

এদিন রাহুল সিনহা অভিযোগের সুরে বলেন,‘ মুখ্যমন্ত্রী এখন আমফান পরবর্তী রাজ্য জুড়ে সংকটের সব দায় অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দিচ্ছেন। কলকাতার বিদুৎ বিভ্রাটের জন্য দায় সিএসি-র হলে, রাজ্য জুড়ে যে বিদ্যুৎ বিভ্রাট হল যা আগামী একমাসে মিটবে বিনা সন্দেহ তার জন্য দায়ি কে? রাজ্য বিদুৎ পর্ষদ কার পরিচালনায় চলে, মুখ্যমন্ত্রী বলবেন কি?’

বাংলা জুড়ে সংকটের দায় রাজ্য সরকারকেই নিতে হবে দাবি করে রাহুলবাবু বলেন, ‘ এই সংকটের দায় নিতে হবে। কেন এখন রাস্তায় কাটা গাছ সরানো হলো না? রাস্তায় স্তুপাকৃত ময়লা পড়ে আছে কেন? কেন এখন পানীয় জল সব জায়গায় পৌঁছানো গেল না। তার জন্য দায়ি কে? এর দায় রাজ্য সরকার ও  পুরসভাগুলির।’

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যয়ের কাছে জবাবদিহি চেয়ে রাহুল সিনাহা বলেন,‘ ঝড় আসার আগাম সর্তকবার্তা থাকার পরেও মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন দফতরগলোর মধ্যে সমন্বয় বৈঠক করতে পারেন নি? নিজেরা পুরোপুরি প্রস্ততি নেননি। আপনারা আমফানের বিষয়ে আসলে সিরিয়াস ছিলেন না। ঝড় যে সঠিক সময়ে আসবে তা আপনারা বিশ্বাসই করেননি। এই কারণেই এতবড় বিপর্যয় ঘটে গেল দক্ষিণ বঙ্গ জুড়ে।’

এদিন বিপর্যয় মোকাবিলায় সেনাকে প্রথমে না ডাকা নিয়েও এদিন সরব হন রাহুলবাবু। তিনি বলেন,‘ আমি প্রথমেই সেনা বাহিনীকে ডাকার কথা বলেছিলাম। তারপর বাধ্য হয়ে সেনাকে ডাকা হল। সেনাকে ডাকার পর পুরমন্ত্রী তাঁদের আবার কাঠবেড়ালি বলে অপমান করলেন! এটাই আপনাদের স্বভাব। আপনারা বার বার ভারতীয় সেনাকে অপমান করেছেন বিভিন্ন ইস্যুতে।’
বিজেপির এই কেন্দ্রীয় সম্পাদক বলেন,‘ আজ বাংলা জুড়ে চিকিৎসক, পুলিশ,সাধারণ মানুষ এই তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করছেন। তাঁদের এখন একটাই দাবি হয় কাজ করুন,না হলে গদি ছাড়ুন।’

Related Articles

Back to top button
Close