fbpx
কলকাতাহেডলাইন

সীমান্তে পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকে কেন? প্রশ্ন তুললেন রাহুল সিনহাও

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিবের সুরে বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহাও বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সীমান্তে পণ্যবাহী ট্রাক আটকে থাকা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন।

 

প্রসঙ্গত রাজ্যর মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাকে গত মঙ্গলবার কড়া চিঠি পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা। ওই চিঠিতে জানতে চাওয়া হয়েছে কেন এখনও পশ্চিমবঙ্গ- বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায় পণ্য পরিষেবা চালু হলো না।

 

এদিন যাদবপুরে দুঃস্থ ৫৫৪ টি পরিবারকে খাবার বিতরণ করেন রাহুল সিনহা। তিনি বলেন, ‘ রাজ্য সরকার কোন কথাই শুনছে না। বাংলাদেশ সীমান্তে দুপারে লাইন দিয়ে ট্রাক দাঁড়িয়ে রয়েছে। দিনের পর দিন এভাবে ট্রাক আটকে থাকায় পণ্য সামগ্রী নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। দুপায়ে দাঁড়িয়ে থাকা ড্রাইভার,ক্লিনাররা সঙ্কটে পড়ছেন। এদিকে রাজ্যের খাদ্যপণ্যের যথেষ্ঠ অভাব রয়েছে।’ রাহুল সিনহা প্রশ্ন তুলেছেন এই সরকারের কি বিন্দুমাত্র বোধশক্তি নেই। সব চোখে আঙুল দিয়ে দেখাতে হবে?’ একইসঙ্গে তিনি অভিযোগ করেছেন, ‘ সীমান্তে একটা চক্র কাজ করে, মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে পণ্যবাহী ট্রাক ঢুকতে বা বেরোতে দেওয়া হয়। সেই টাকার ভাগ উপরমহল পর্যন্ত পৌঁছে যায়। আমি মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করবো এই দুষ্টচক্র ভেঙে যথাযথ স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর এপারের পণ্যবাহী ট্রাকগুলিকে ওপারে আর বাংলাদেশের দিকে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকগুলোকে এপারে আসার ব্যবস্থা করুন।’

এদিন রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়েও তিনি কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেন, ‘ আমাদের মুখ্যমন্ত্রী সব সময়ে বলেন, এগিয়ে বাংলা। করোনায় মৃত্যুর হারের নিরিখে সব রাজ্যকে পিছনে ফেলে সত্যিই এগিয়ে বাংলা, একেবারে সবার আগে। আসলে সংক্রমণ, মৃত্যুর সংখ্যা লুকিয়েও রাজ্য শেষরক্ষা করতে পারলো না। আর লজ্জাজনক এই অবস্থার জন্য দায়ী রাজ্য সরকারের ঢিলেঢিলা মনোভাব। র্্যানডাম টেস্ট হয়নি, রেডজোনে লকডাউন মানা হয়নি, মদের দোকানে উপচে পড়া ভিড়। কেউ সোশ্যাল ডিসট্যান্সি মানছে না। রাজ্য সরকারের কোনো ভূমিকাই দেখতে পাচ্ছি না। এটা দুর্ভাগ্যজনক।’

Related Articles

Back to top button
Close