fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

“মমতা দিদি ভয় পেয়েছেন, ইয়ে ডর আচ্ছা হ্যায়” মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ তেজস্বীর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: একুশে বাংলা জয়ের লক্ষ্যকে সামনে রেখে, নিজেদের রণকৌশল ঠিক করেই আজ মাঠে নামছে ব্বিজেপি। সুনসান নবান্নের দিকেই কলকাতা এবং হাওড়া থেকে বিজেপির চারটি মিছিল এগিয়ে যাবে আজ, বৃহস্পতিবার দুপুর বারোটা থেকে।দলের যুব মোর্চার এই কর্মসূচি নিয়ে সপ্তাহ দুয়েক ধরে সাজো সাজো রব বিজেপির অন্দরে। দু’লক্ষ লোকের জমায়েত করে কী ভাবে বৃহস্পতিবার কলকাতা অচল করে দেওয়া যায়, তা নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন বিজেপি নেতারা।

শাসকদল তৃণমূলকে চাপে ফেলতে মরিয়া বিরোধী বিজেপি। বৃহস্পতিবার নবান্ন অভিযানের পরিকল্পনা রয়েছে গেরুয়া শিবিরের। তবে এদিনই জীবাণুমুক্তকরণের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে নবান্ন । তাতেই বেজায় ক্ষুব্ধ বিজেপি শিবির। বুধবারই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই ইস্যুতে তোপ দেগেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রাতে দমদম বিমানবন্দরে নেমে সেই একই সুরে সুর মেলালেন বিজেপি যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য । মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ শানালেন তিনি। তেজস্বী বলেন, “মমতা দিদি ভয় পেয়েছেন, ইয়ে ডর আচ্ছা হ্যায়।”

শিল্প, কর্মসংস্থান, আইনশৃঙ্খলা-সহ একাধিক দাবিতে বিজেপির যুব মোর্চার এই নবান্ন অভিযান কর্মসূচি। যার সঙ্গে যোগ হয়েছে টিটাগড়ের বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনার ইস্যুও। সকাল ১১টায় চার জায়গা থেকে বিজেপির মিছিল শুরু হবে নবান্নের দিকে। বিজেপির রাজ্য দফতর থেকে দিলীপ ঘোষের  নেতৃত্বে একটি মিছিল হবে। কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়ের নেতৃত্বে একটি মিছিল হবে হেস্টিংসে ফ্লাইওভারের নিচ থেকে। যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য নেতৃত্ব দেবেন হাওড়া ময়দান থেকে মিছিলটির। আর রাজ্য নেতা সায়ন্তন বসু-সহ অন্যরা সাঁতরাগাছি থেকে মিছিলটির নেতৃত্ব দেবেন। সব মিছিলের অভিমুখ হবে নবান্নের দিকে, এমনটাই বিজেপির তরফে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় সিআইডির হাতে গ্রেফতার আরও ১

নবান্ন অভিযান ঘিরে অশান্তির আশঙ্কাও রয়েছে। বিজেপির নবান্ন অভিযানের মিছিল আটকাতে কলকাতা থেকে হাওড়া যাওয়ার প্রত্যেকটি রাস্তা বন্ধ করেছে পুলিশ। হাওড়া ব্রিজ ও বিদ্যাসাগর সেতুতে ওঠার আগে রাস্তাগুলিতে ব্যারিকেড করে দেওয়া হচ্ছে। প্রত্যেকটি ব্যারিকেডে থাকছে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ বাহিনী। জলপথে যাতে কলকাতা থেকে হাওড়ায় নবান্নের দিকে কেউ না যেতে পারেন, তার জন্য কড়া নজর রাখছে জলপুলিশ।এদিকে এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে যাতে কোনো অশান্তি  না হয় সে দিকে প্রশাসন কড়া নজর রেখেছে।বুধবার বিকেল থেকেই হাওড়া র বিভিন্ন  পয়েন্টে ব্যারিকেট করা হয়েছে।সাঁতরাগাছি পয়েন্ট ছাড়া ও হাওড়ার  ফোরসোর রোডে তৈরী হয়েছে  ব্যারিকেট। তবে নবান্ন অভিযানে হাওড়া পয়েন্ট থেকেই বেশী লোক জমায়েত হবে বলে মনে করা হচ্ছে ।

Related Articles

Back to top button
Close