fbpx
দেশহেডলাইন

প্রিয়াঙ্কার পোশাক ধরে টানা পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ বিজেপি নেত্রী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: রাজনীতির রঙের উর্দ্ধে উঠে , মহিলাদের সম্মানের খাতিরে মুখখুলেন বিজেপি নেত্রী।হাথরাসে যাওয়ার পথে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে হেনস্তা করেছিলেন এক পুলিশ কর্মী। এ নিয়ে  তীব্র নিন্দা করলেন মহারাষ্ট্রের বিজেপি নেত্রী। টুইটারে লিখলেন, একজন পুরুষ পুলিশ কর্মীর মহিলা রাজনৈতিক নেত্রীর গায়ে হাত দেওয়ার সাহস পায় কী করে? বিজেপি নেত্র্রীর টুইট দেখে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছে কংগ্রেসও। প্রসঙ্গত, মহারাষ্ট্রের বিজেপি সহ-সভানেত্রী চিত্রা ওয়াঘ গত বছরই কংগ্রেস ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়েছিলেন। তিনি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ নাথের কাছে এ ঘটনায় অভিযুক্ত পুলিশের বিরুদ্ধে ‘কঠোর ব্যবস্থা’ নিতে আবেদন করেন। চিত্রা বাঘের এই পদক্ষেপকে সমর্থন জানিয়েছে বিরোধী কংগ্রেসও।

রাহুল গান্ধীকে নিয়ে হাথরাসে নির্যাতিতার বাড়ি যাওয়ার পথে পুলিশি বাধার মুখে পড়েছিলেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। সেই সময়ের একটি ছবি ভাইরাল হয়, যাতে দেখা গিয়েছে কংগ্রেস নেত্রীর কুর্তি ধরে টানছেন পুরুষ পুলিশ কর্মী, যা নিয়ে নিন্দার ঝড় বয়ে গিয়েছে। এ নিয়ে পুলিশের নিন্দা করে চিত্রা টুইট করেন, ” কীভাবে একজন পুরুষ পুলিশ কর্মী একজন রাজনৈতির নেত্রীর পোশাকে হাত দিতে পারে? এত সাহস হয় কী করে? পুলিশের নিজের সীমা মনে রাখা উচিত।” তারপরেই তিনি আরও লেখেন, “যোগী আদিত্যনাথজদি ভারতীয় সংস্কৃতিতে বিশ্বাস করেন। ওঁর পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ।” ইতিমধ্যে এই ঘটনায় প্রিয়াঙ্কার কাছে ক্ষমা চেয়েছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। পাশাপাশি গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়ুন: অনলাইনে যোগী আদিত্যনাথের বাড়িতে আপত্তিকর জিনিস পাঠিয়ে গ্রেফতার যুবক

চাপের মুখে এবার ক্ষমা চাইল যোগী পুলিস। শনিবার লজ্জাজনক ঘটনায় চিহ্নিত করা হয়েছে অফিসারকে। শুরু হয়েছে তদন্তও। টুইট করে এমনটাই জানাল নয়ডা কমিশনারেট।

উল্লেখ্য, কংগ্রেসও চিত্রা ওঘ’কে এই প্রতিবাদের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছে। অবশ্য এর আগেও এই ঘটনায় সরব হয়েছিল রাজনৈতিক দলগুলি। টুইটে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে হেনস্থার ছবি পোস্ট করে যোগী সরকারের উদ্দেশ্যে শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউতের প্রশ্ন, ”যোগী আদিত্যনাথের সরকারের হাতে কি মহিলা পুলিশকর্মী নেই?” কংগ্রেসের তরফেও ঘটনার কড়া নিন্দা করা হয়েছে।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close