fbpx
কলকাতাহেডলাইন

একুশে গেরুয়া পতাকা ওড়ানোর লক্ষ্যে বিজেপির লক্ষ্য জনতার নবান্ন অভিযান

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: একুশের যুদ্ধের খুব বেশি দেরি নেই। দিল্লিতে যেদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, সর্বভারতীয় সভাপতি জে.পি নাড্ডা বঙ্গ নেতৃত্বের সঙ্গে জরুরী বৈঠক করছেন, সেদিনই লক্ষ মানুষের মিছিল করে নবান্ন অভিযানের নকশা তৈরি করলো রাজ্য বিজেপি।  বৃহস্পতিবার সকালে রাজ্য বিজেপি দফতরে যুবমোর্চার বিভিন্ন জেলার সাধারণ সম্পাদক, রাজ্য কমিটির সদস্য, যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ, দলের সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু প্রমুখ নবান্ন অভিযানের বিষয়ে বৈঠক করেন।

সায়ন্তন জানিয়েছেন, ‘বেকারত্ব, জীবিকার সুযোগের দাবি সহ রাজ্যে চলা নারী নিগ্রহ, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নবান্ন অভিযান ৮ তারিখ। ওইদিন ২ লক্ষ কর্মী, সমর্থকের মিছিল করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বার্তা দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য।’ গেরুয়া শিবিরের খবর, একুশের লড়াইয়ের আগে লক্ষ মানুষের মিছিল করে তৃণমূল নেত্রীকে একটা বড়ো ধাক্কা দেওয়াই লক্ষ্য। বিশেষ করে রাজ্যের ছাত্র যুবদের কাছে রাজ্য সরকারের জীবিকার সংস্থানের প্রশ্নে ব্যর্থতার চিত্রটাই তুলে ধরতে চাইছে গেরুয়া শিবির।

[আরও পড়ুন- বিহারে নির্বাচন সম্ভব হলে রাজ্যে পুর নির্বাচন নয় কেন? রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে প্রশ্ন বিজেপির]

এই অভিযানের ডাক দিয়েছে বিজেপির যুবমোর্চা। তবে বিজেপি সূত্রে খবর এই কর্মসূচিতে রাজ্যের কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়, সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সহ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব যোগ দেবেন। ওইদিন কলকাতার তিনটি জায়গা থেকে মিছিল হওয়ার কথা। বিজেপির সদর দফতর, সাঁতরাগাছি ও হাওড়া ময়দান।

বিজেপির যুবনেত্রী ও রাজ্য কমিটির সদস্যা প্রিয়াঙ্কা শর্মা বলেন, ‘ নবান্ন অভিযানের প্রচার আমরা ব্যাপকভাবে করছি। বিভিন্ন এলাকায় ছোট ছোট বৈঠক হচ্ছে। এ ছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়াতেও প্রচার হচ্ছে। ব্যানার, পোস্টারতো রয়েইছে। আমরা যে কোন মূল্যে নবান্ন অভিযানকে সফল করতে মরিয়া।’  দিল্লির খবর ,পুজোর আগেই একুশের নীল নকশা তৈরিতে রাজ্যে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তার আগে নবান্ন অভিযানের মধ্য দিয়ে শাসক শিবিরে শিহরণ তুলতে চাইছে গেরুয়া শিবির।

 

Related Articles

Back to top button
Close