fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

হাউর-এ বিজেপির উদ্যোগে ত্রাণবিলি

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : উন্নয়নের নামগন্ধ নেই । দুর্নীতি আর স্বজনপোষনেই তৃণমূল পরিচালিত হাউর অঞ্চল। গত লোকসভা নির্বাচনেই হাউর অঞ্চলে বিজেপি প্রার্থী বিপুল ভোট পেয়েছে তৃণমূলের চেয়ে।
তবুও এই কোরোনা উদ্ভুত পরিস্থিতিতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে যখন সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে চরম উদাসীনতা, তখন সেই হাউরবাসীর পাশে দাঁড়ালো বিজেপি।

 

বিজেপি হাউর মন্ডলের উদ‍্যোগে হাউর ট্রেকার স্ট‍্যান্ড থেকে প্রায় পাঁচশো পরিবারের হাতে খাদ‍্যসামগ্রী ত্রাণ হিসাবে তুলে দেওয়া হয়। আর্থিক সংকটে থাকা মানুষগুলির হাতে ত্রাণ তুলে দেন তাম্রলিপ্ত সাংগঠনিক জেলার সভাপতি নবারুণ নায়েক, হাউর মন্ডলের সভাপতি সহদেব প্রামানিক সহ জেলা ও মন্ডলের অন‍্যান‍্য বিজেপি নেতৃত্ববৃন্দ।

পাঁশকুড়া ব্লকের হাউর উত্তর বুথেও বিজেপি অভিনব উদ্যোগ নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ালো। স্থানীয় গ্রামবাসী ও যুবকদের সহায়তায় সাপ্তাহিক খরচের সব্জি তুলে দেওয়া হোলো প্রায় দুই শতাধিক পরিবারের হাতে। শনিবার সকালে হাউর গ্রামের শীতলামাতার মন্দির সংলগ্ন মাঠে এই গণবন্টনের আয়োজন করা হয়।

 

 

হাউর গ্রাম কমিটির সম্পাদক অভিজিৎ মণ্ডল এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, রুজি রোজগার বন্ধ থাকার জন্য স্থানীয় মানুষের অনেক অসুবিধা হচ্ছে। এলাকায় বেশকিছু পরিযায়ী শ্রমিকও ফিরে এসেছে। তাঁদের পাশে দাঁড়াতে পঞ্চায়েত প্রশাসন বা সরকারি উদ্যোগ চোখে পড়ছে না। আর্থিক সীমাবদ্ধতার মধ‍্যেও দুঃস্থ পরিবারের পাশে যেভাবে বিজেপির স্থানীয় যুবকরা বারবার দাঁড়াচ্ছে তা প্রশংসনীয়।

 

 

এলাকার সাধারণ মানুষ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই ৩-৪ কেজি সবজি ও ডিম ব‍্যাগে ভরে ঘরে নিয়ে যান। বিজেপির বুথ সভাপতি গৌতম মন্ডল বলেন, এর আগেও আমরা বাড়ি বাড়ি খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়ে এসেছি। এবার আরও বেশি পরিমাণে দিচ্ছি।

 

 

এলাকায় দুদিন করে সাপ্তাহিক হাট বসতো। করোনা পরিস্থিতির জন্য তা এখন বন্ধ আছে। স্থানীয় মানুষকে কিছুটা স্বস্তি দিতে এই আয়োজন বলে জানান বিজেপির নেতৃত্ব। মানুষের সমস্যার সম্পূর্ণ সুরাহা না হলেও কিছুটা তো মানুষের পাশে দাঁড়ানো গেল। স্বাভাবিকভাবে হাউর অঞ্চলের ৩৬ টি গ্রামের গরিব মানুষের হাতে এই ত্রাণ তুলে দিয়ে নবারুণ নায়েক বলেন, বিজেপি সবসময়ই সাধারণ মানুষের পাশে আছে। রাজনৈতিক রঙ দিয়ে মানুষকে বিচার করেনা। সাধারণ মানুষের স্বার্থে কেন্দ্রীয় সরকারের সদিচ্ছা আজ সর্বজনবিদিত। আমাদের উচিত, এখনকার কঠিন পরিস্থিতিতে সকলের পাশে দাঁড়ানো।

Related Articles

Back to top button
Close