fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বামফ্রন্টের মতো তৃণমূল কংগ্রেসও সংখ্যালঘু উন্নয়ণ করেনি: আলি হোসেন

মোকতার হোসেন মন্ডল: বামফ্রন্টের মতো তৃণমূল কংগ্রেসও সংখ্যালঘু উন্নয়ন করেনি বলে অভিযোগ করলেন বিজেপির মাইনোরিটি মোর্চার রাজ্য সভাপতি আলি হোসেন। শনিবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এই অভিযোগ করেন।

বিজেপির ওই নেতা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ‘মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের যেমন মুখ্যমন্ত্রী তেমনি সংখ্যালঘু উন্নয়ণ মন্ত্রীও। তিনি বিগত ৯ বছর ২ মাস ধরে রাজ্যের শাসন ক্ষমতায় আসীন। ক্ষমতায় আসার প্রথমেই প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেছিলেন দশ হাজার নতুন মাদ্রাসার অনুমোদন দেবেন। নতুন শিক্ষক নিয়োগ করবেন পুরাতন মাদ্রাসাগুলিতে। মুসলিম বহুল এলাকায় স্বাস্থ্যকেন্দ্র স্থাপন করবেন। সাধারণ সংখ্যালঘু শিক্ষিত বেকার যুবকদের চাকরি দেবেন। ব্যবসা করার টাকাও দেবেন। ৯ বছরে কতটা উন্নয়ণ করলেন তা মূল্যায়ন করলে দেখা যাচ্ছে তিনি যা যা বলেছেন সবটাই ধাপ্পা। কোনও প্রতিশ্রতি তিনি রক্ষা করতে পারেন নি।”

 

বিজেপি মাইনোরিটি মোর্চার রাজ্য সভাপতি ও প্রবীণ আরএসএস কর্মী আলি হোসেনের মন্তব্য, ‘বামফ্রন্ট যেমন সংখ্যালঘু মুসলিম ভাই বোনদের ৩৫ বছর  ঠকিয়ে ছিল, তেমনি বামফ্রন্টের হুবহু নকল করা তৃণমূল সরকার একই পথে চলেছে। তাই আমরা বিজেপি সংখ্যালঘু মোর্চা তৃণমূল সরকারের কাছে শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি করছি।”

তাঁর অভিযোগ, “কেন্দ্রের দেওয়া সংখ্যালঘু উন্নয়নের টাকার হিসাব নেই। এই সরকার সার্বিকভাবে ব্যর্থ। অপর দিকে বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলিতে সংখ্যালঘু মুসলিম ভাই বোনেরা নিরাপদে আছেন। তাদের শিক্ষা, চাকুরি সব কিছুই সেই রাজ্য গুলিতে হচ্ছে। তাহলে মমতার রাজ্যে হচ্ছে না কেন? শুধু ইমাম মুয়াজ্জিনদের ভাতা দিয়ে সমগ্র মুসলিম সমাজকে কব্জা করা যায় না। তাই আজ সমগ্র বাংলার মুসলিম সমাজ দিদির মতলব বুঝতে পেরে প্রকৃত পরিবর্তন চাচ্ছেন এবং দলে দলে ঝাঁকে ঝাঁকে দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে বিজেপিতে যোগদান করছেন। একমাত্র বিজেপিই সংখ্যালঘু মুসলিম ভাই বোনদের প্রকৃত উন্নয়ন করতে পারে।”

Related Articles

Back to top button
Close