fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি ও বিভিন্ন দাবি নিয়ে জেলাশাসকে ডেপুটেশন জমা বিজেপির

প্রদীপ্ত দত্ত, সিউড়ি:  জেলার প্রত্যেক ব্লকের বিডিও অফিসে মঙ্গলবার ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী অবস্থান বিক্ষোভে বসেন জেলার বিজেপির নেতা ও কর্মীরা। জেলা বিজেপির কার্যকর্তারা সকাল ১১ থেকে ব্লকের বিভিন্ন বিডিও অফিসের সামনে প্রতিকী অবস্থানে বিক্ষোভ শুরু করেন। বিক্ষোভ প্রদর্শন কালে বিজেপির সহ সভাপতি স্বরুপ রতন সিনহা সহ ৯ জন বিজেপি কর্মীকে গ্ৰেফতার করে পুলিশ । এরই প্রতিবাদে পথে নামে জেলা বিজেপির নেতা ও কর্মীরা। বীরভূমের জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসুকে মঙ্গলবার দুপুরে স্মারকলিপি জমা দেন জেলা বিজেপি নেতৃত্ব।

জেলা নেতৃত্বের পক্ষ থেকে জানানো হয় , প্রধানমন্ত্রী গরীব কল্যান যোজনা প্রকল্পে অতিরিক্ত খাদ্য বন্টনে অনিয়ম ,দুর্ণীতি বন্ধ ও অবস্থান বিক্ষোভে থাকা বিজেপি কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে এই স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী গরীব কল্যান যোজনা প্রকল্পে গরীব মানুষেরা তিন মাস ধরে ৫ কেজি চাল,গম ও ১ কেজি ডাল পরিবার পিছু দেওয়া হবে । কিন্তু প্রশাসনের ব্যর্থতায় সেই অনুদান সঠিক ভাবে গরীব মানুষের কাছে পৌঁছাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন জেলার বিজেপি নেতারা । এছাড়াও যে দাবিগুলো করা হয়েছে সেগুলো হল , প্রধানমন্ত্রী গরীব কল্যান অন্ন যোজনায় (PMJKY ) জেলার ব্লকে ব্লকে চালু হয়েছে কি না। চালু হয়ে থাকলে কোথায় কোথায় চালু হয়েছে এবং চালু না হয়ে থাকলে ,চালু না হ ওয়ার কারণ জানানো ।

আরও পড়ুন: হরিপালে রান্না করা খাবারের আয়োজন

এই প্রকল্পে কোন কোন শ্রেণীর কার্ড হোল্ডার কি অনুপাতে অনুদান পাবে তা দোকানে বাধ্যতামূলক ভাবে টাঙানোর ব্যাবস্থা করা ।  ডিজিটাল কার্ড যারা পাননি তাদের ক্ষেত্রে প্রকল্পের সুবিধা পাবার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে কি কি ব্যাবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানানো । পুরনো কার্ড দিয়ে এই প্রকল্পের সুবিধার ব্যাবস্থা করা। বিশেষ কূপন বিলি করা হলে তা সরকারি কর্মীদের মধ্যে দিয়ে করানো । প্রধানমন্ত্রী যোজনায় হাউস ফর অল প্রকল্পে দুর্ণীতি মুক্ত করা। এই প্রকল্প ছাড়া রাজ্য সরকারের অধীনে আর কী প্রকল্প চালু আছে তা জানানো। রেশন ডিলারদের দুর্ণীতির অভিযোগের বিরুদ্ধে প্রশাসন কী ব্যাবস্থা নিয়েছে তা জানানোর ব্যাবস্থা করা । রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের দিয়ে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের অনুদান বিলি রাতে না হয় তার ব্যাবস্থা নেওয়া । রেশন ব্যাবস্থা বিষয়ে তথ্য জানানোর জন্য হেল্প লাইন চালু করা।

এছাড়াও শান্তিপূর্ণ অবস্থান বিক্ষোভে থাকা বেআইনি ভাবে আটক করা কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে বলে স্মারকলিপিতে দাবি করা হয়েছে । প্রশাসনের পক্ষে থেকে জানানো হয়েছে যে তাঁরা স্মারকলিপি পেয়েছেন। পরবর্তী ক্ষেত্রে আলোচনা করে এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়া হবে ।

Related Articles

Back to top button
Close