fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্যের ভ্রষ্টাচার সরকারকে উপড়ে ফেলার আহ্বান তেজস্বী সূর্যের

শ্যামল কান্তি বিশ্বাস : ভারতীয় যুব মোর্চা, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির ডাকে আজ নবান্ন অভিযান। ৭ দফা দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান উপলক্ষে এই কর্মসূচি তে সামিল সংগঠনের সর্ব ভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। দক্ষিণ বঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে কর্মী সমর্থকেরা গত কাল থেকেই কর্মসূচিতে যোগদানের উদ্দেশ্যে এসে পৌঁছেছে। রাজ্য সরকার শেষ মুহূর্তে তড়িঘড়ি নবান্ন স্যানিটাইজের অযুহাত এনে নবান্ন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ঘটনায় বিস্মিত নয়, বিজেপি নেতৃত্ব।

 

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ থেকে, কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয় বর্গীয়, সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি সভাপতি মুকুল রায়, রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ প্রত্যেকেই অভিমত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভয় পেয়েছে। ভয় পেয়ে তড়িঘড়ি এই সিদ্ধান্ত কিন্তু তাতে কাজ হবেনা। পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি আমাদের হবেই, প্রয়োজনে আমরা পিসির ভাইপো, যুব রাজের বাড়ি অভিযান করবো। ঘটনায় অত্যন্ত রাজ্যের মানুষ বুঝতে পারছেন, বাংলায় গণতন্ত্র  কোথায়? সাধারণ মানুষের কন্ঠ রোধ করে, অধিকার আদায়ের আন্দোলনকে স্তব্ধ করা যাবে না। ইতিমধ্যেই কলকাতার মাটিতে পা রেখেছেন বিজেপির যুব মোর্চার সর্ব ভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। সৌর্য, বীর্যে অপরাজেয়, যৌবনের দূত অগ্ৰগতির প্রতীক তেজস্বীর  বিক্রম তেজে উজ্জীবিত বাংলার নেতাকর্মী সহ আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী যুব জনতা।

 

সর্বভারতীয়  সভাপতি তেজস্বী সুর্যের হুংকার, উবড়ে ফেলতে হবে রাজ্যের ভ্রষ্টাচারী তৃনমূল কংগ্রেস সরকারকে। সীমাহীন দূর্নীতিতে জর্জরিত দায়িত্ব জ্ঞানহীন সরকারের রাজ্যের শাসন ক্ষমতায় থাকার বিন্দুমাত্র অধিকার নেই। মানুষের অধিকার ছিনিয়ে লুটেপুটে খাওয়া পিসি ভাইপো সিন্ডিকেট রাজের সরকারকে চিরতরে বিসর্জনের আহ্বান জানান যুব সমাজ তথা রাজ্যবাসীকে। বাংলার সচেতনশীল নাগরিক দের উদ্দেশ্যে, তেজস্বী সূর্যের বিনীত আবেদন, গর্জে উঠুন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান, দূর্নীতিগ্রস্ত পিসি-ভাইপো সিন্ডিকেট সরকারকে চিরতরে নির্বাসন দিয়ে বাংলায় ভারতীয় জনতা পার্টির নেতৃত্বে সুশাসন ফিরিয়ে আনুন।

Related Articles

Back to top button
Close