fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গুলিবিদ্ধ বিজেপি কর্মী! অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে, ধিক্কার মিছিল খেজুরিতে

ভীষ্মদেব দাশ, খেজুরিঃ গত রবিবার খেজুরিতে তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়েছিল। বিজেপি কর্মীকে তৃণমূল কর্মীরা গুলিবিদ্ধ করেছে বলেই অভিযোগ তোলেন বিজেপি নেতৃত্বরা। এই ঘটনার ফলে রবিবার দীঘা-নন্দকুমার জাতীয় সড়ক অবরোধ করেছিল বিজেপি। তৃণমূলের বদনাম করা হচ্ছে, এই ঘটনার সাথে তৃণমূলের কেউ জড়িত নয় বলেই দাবি করেছেন খেজুরির বিধায়ক। বিজেপির চক্রান্তের প্রতিবাদে সোমবার বিকেলে হেঁড়িয়াতে ধিক্কার মিছিল করে তৃণমূল নেতৃত্ব।

 

 

 

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক, নেতৃত্ব সহ শতাধিক তৃণমূল কর্মী সমর্থক। পাশাপাশি গোড়াহার জালপাই ও কটকা দেবীচক এলাকায় চলছে পুলিশি টহল।  প্রসঙ্গত খেজুরি-২ ব্লকের কটকা দেবীচক, গোড়াহার এলাকায় দফায় দফায় সংঘর্ষ চলে। গত কয়েকদিন ধরেই খেজুরিতে তৃণমূল-বিজেপির সংঘর্ষ লেগেছিল। আমফান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ২০হাজার টাকা দেওয়া নিয়েই গন্ডগোল শুরু হয়। বিজেপির অভিযোগ তৃণমূল প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের বঞ্চিত করে তৃণমূল ঘনিষ্টদের টাকা দিচ্ছে। ব্লক প্রশাসন বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখার আশ্বাসও দেন। রবিবার সকালে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাড়ে। বোমাবাজি, বাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হন উভয় দলের সমর্থকরা।

 

 

 

গুলি চালানোর অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বিজেপির কাঁথি সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক তাপস দলুই বলেন, পবিত্র দাসকে লক্ষ করে গুলি চালায় তৃণমূল কর্মীরা। গুলি লাগার পরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পথ আটকায় তৃণমূল। পবিত্র সহ আমাদের ৬জন কর্মী জখম হয়েছেন। সকলেই চিকিৎসাধীন। প্রশাসনের নিরব ভূমিকার জন্য দিনের আলোতে গুলিবিদ্ধ হতে হল বিজেপি কর্মীকে। এই ঘটনার পরেই বিজেপি কর্মীরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। দীঘা-নন্দকুমার ১১৬বি জাতীয় সড়কের হেঁড়িয়াতে পথ অবরোধ করেন বিজেপি কর্মীরা। কয়েকদিন ধরে গন্ডগোল চললেও পুলিশের তৎপরতা নেই বলে দাবি বিজেপির। খেজুরির বিধায়ক রনজিত মন্ডল বলেন, সিপিএম ও বিজেপি এক হয়ে নাটক করছে। তৃণমূলের কেউ এঘটনায় জড়িত নেই। বিজেপি নাটক করে তৃণমূলের বদনাম করছে। নোংরা রাজনীতির প্রতিবাদে আমরা ধিক্কার মিছিল করলাম।  এই ঘটনার পরে থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি বলে জানিয়েছেন খেজুরি থানার ওসি সত্যজিৎ চানক।

Related Articles

Back to top button
Close