fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বসিরহাটের হাড়োয়ায় বিজেপি কর্মী সহ তার মা’কে মারধর, উত্তেজনা

পরিমল দে, বসিরহাট: বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠল স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য ও তার অনুগামীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে হাড়োয়া থানার কুলটি গ্রাম পঞ্চায়েতের পুরাতন কামারগাথীঁ এলাকায়। অভিযোগ গত মে মাসের কুড়ি তারিখে প্রবল ঘূর্ণিঝড় আমফানের দাপটে কুলটি এলাকাতেও প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। সেই ক্ষয়ক্ষতির জন্য এলাকার বেশ কিছু বিজেপি কর্মী সমর্থকরা ক্ষতিপূরণের টাকা পাওয়ার আশায় হাড়োয়া ব্লক উন্নয়ন আধিকারিকের কাছে সরাসরি দরখাস্ত জমা করেছিল।

সেই দরখাস্ত জমা করার পর  বিডিও মারফত ওই আবেদনকারীদের নাম জানতে পারে কোনটি অঞ্চলের সত্তর নম্বর বুথের পঞ্চায়েত সদস্য তথা পুরাতন কামারগাথীঁ এলাকার তৃণমূল নেতা আতিয়ার মোল্লা। তারপর থেকেই ওই সব বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে মারধর ও খুনের হুমকি দিতে থাকে আতিয়ার মোল্লা অনুগামীরা।

গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার রাতে আতিয়ার মোল্লা ও তার অনুগামীরা এলাকার বিজেপি নেতা রাধেশ্যাম মণ্ডলের বাড়িতে গিয়ে চড়াও হয়। তার বাড়ির দরজা ভেঙে তাকে মারধর করে। রাধেশ্যাম মন্ডলকে মারধর করার সময় বাধা দিতে আসলে রাজেশ মন্ডলের মা পরী বালা মন্ডলের মারধর করে। এমনকী তাদের বাড়ির ভেতর ঢুকেও লুটপাট চালায় বলে অভিযোগ। এই ঘটনার কথা জানতে পেরে এলাকার আরও বেশ কিছু বিজেপি কর্মীরা রাধেশ্যাম মন্ডলও তার মাকে কোনরকমে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে চিকিৎসা করে গভীর রাতে তারা আবার বাড়ি ফিরে যায়।

এরপর আজ অর্থাৎ শুক্রবার সকালে ওষুধ কেনার উদ্দেশ্যে রাধেশ্যাম মন্ডল বাইরে বের হলে তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে গাছের গায়ে বেঁধে রাখে এমনকী তার মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়া হয়েছে। ঘটনার কথা জানার পর হাড়োয়া থানার পুলিশ গিয়ে রাধেশ্যাম মন্ডলকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। বর্তমানে রাজেশ মন্ডল ও তার মা প্রাণের ভয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে।

স্থানীয় বিজেপি নেতা জয়ন্ত মন্ডল বলেন,’ আমফান এ এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের প্রাপ্য টাকা দিতে হবে। সেই সঙ্গে এই ঘটনার  সুবিচার চাই আমরা। অপরদিকে এলাকা তৃণমূল নেতা মৃত্যুঞ্জয় মন্ডল এর দাবি, ‘রাতে বাড়ি ফিরছিল পঞ্চায়েত সদস্য আতিয়ার মোল্লা তখন এলাকার বেশ কিছু বিজেপি কর্মীরা তাকে আটকে মারধর শুরু করে, আতিয়ার মোল্লার চিৎকারে এলাকাবাসীরা ছুটে এসে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই বিজেপি কর্মীকে মারধর করেছে। বিজেপি কর্মীদের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনা তদন্ত শুরু করেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close