fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাস্তা সারাইয়ের দাবিতে পথ অবরোধ বিজেপি কর্মীদের

মিল্টন পাল,মালদা: দীর্ঘদিন ধরে বেহাল একমাত্র চলাচলের রাস্তা।বর্ষা মরশুমে জল জমে আরও বেহাল হয়ে গেছে এই রাস্তা। সেই রাস্তা সারাইয়ের প্রতিবাদ জানিয়ে পথ অবরোধ করল বিজেপি কর্মীরা। এই পথ অবরোধের ঘটনায় মিথ্যে অভিযোগে বিজেপি কর্মীদের গ্রেফতার করল পুলিশ। আর এরই প্রতিবাদে মালদার চাঁচোল থানা ঘেরাও করল বিজেপি নেতা কর্মীরা। এই থানা ঘেরাওয়ের নেতৃত্ব দেন উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু।

থানা পাড়া এলাকার প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে বেহাল হয়ে রয়েছে। কোথাও গর্ত আবার কোথায় হাঁটু পর্যন্ত জলে মানুষের চলাচল করতে সমস্যা হচ্ছিল।  সম্প্রতি বৃষ্টির কারনে রাস্তায় আরও জল জমে যায়। সেই কারনে বিজেপি কর্মীরা এলাকাবাসীদের নিয়ে রাস্তার মধ্যে মাছ ছেড়ে পথ অবরোধ ও বিক্ষোভ শুরু করে। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তৃণমূল পরিচালিত চাঁচোল গ্রামপঞ্চায়েতের সদস্য বিপ্লব মন্ডল সহ বেশ কয়েকজন ঘটনাস্থলে আসে।

তৃণমূলের অভিযোগ সেইসময় বিপ্লব মন্ডলকে বেধড়ক মারধর শুরু করে প্রসেনজিৎ শর্মা ও তার দলবল। এই মর্মে থানায় বিজেপি নেতা প্রসেনজিৎ শর্মার নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে তৃণমূল। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ অন্যায় ভাবে বিজেপি কর্মী প্রসেনজিৎ শর্মাকে গ্রেফতার করে।মিথ্যা মামলায় বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতারে প্রতিবাদে উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খেন মুর্মুর নেতৃত্বে থানা ঘেরাও করা হয়। চলে অবস্থান বিক্ষোভ।

উত্তর মালদার বিজেপি সংসদ খগেন মুর্মু বলেন, সারা পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে রাস্তার বেহাল দশা। সেইরকম মালদা জেলার চাঁচোলে রাস্তা সারাইয়ের প্রতিবাদ করে বিজেপি কর্মীকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অথচ শাসক দলের তিন জনের নামে অভিযোগ করা হলেও তারা ঘুরে বেড়াচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ।

মালদা জেলা তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি দুলাল সরকার বলেন, আমাদের কর্মী সমর্থকদের মারধর করা হয়েছে। সেই ঘটনার অভিযোগ দায়ের করেছে থানায়। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। পুলিশ সঠিক কাজ করেছে এতে আমাদের কিছু বলার নেই।

Related Articles

Back to top button
Close