fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

১০০ ফুট দীর্ঘ জাতীয় পতাকা নিয়ে বিজেপির শোভাযাত্রা 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ১০০ ফুট দীর্ঘ জাতীয় পতাকা নিয়ে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করে দেশমাতাকে সম্মান জানাল বিজেপি টালিগঞ্জ মন্ডল ১ এবং সংখ্যালঘু মোর্চা। গতকাল ছিল অখণ্ড ভারতের স্বাধীনতা দিবস। দেশ জুড়ে কোরোনা আবহের মাঝেও যথা যথ সম্মানের সঙ্গে পালিত হয়। একদিকে দিল্লির লালকেল্লা থেকে যেমন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পতাকা উত্তোলন করে জাতির দেশ বাসির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়েছিলেন। তেমনি কলকাতাতেও ১০০ ফুটের পতাকা নিয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা করে নতুন ইতিহাস তৈরি করল বিজেপি টালিগঞ্জ মন্ডল ১ এবং সংখ্যালঘু মোর্চা।
শনিবার সকালে গাছতলা মোড় থেকে আনোয়ার শাহ ক্রসিং অবধি এই তিরঙ্গা যাত্রার করা হয়। এই শোভাযাত্রার প্রধান আকর্ষণ ছিল ১০০ ফুট দৈর্ঘের কলকাতা শহরের দীর্ঘতম জাতীয় পতাকা। এই তিরঙ্গা যাত্রাতে স্বতঃস্ফূর্ততার সঙ্গে যোগ দান করেছেন টালিগঞ্জ এলাকার প্রায় শতাধিক মানুষ। একইসঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এই দীর্ঘ পদযাত্রার মাধ্যমে নতুন ভারতকে আত্মনির্ভর বানানোর অঙ্গীকার নেওয়া হয়। শোভাযাত্রার মাঝে সমস্ত বিজেপি কর্যকর্তাবৃন্দ বাঙুর হাসপাতালের সামনে সামাজিক দূরত্ব ও অন্যান্য সরকারি বিধি মেনে করোনা যোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে পুষ্পবৃষ্টি করে, করতালির সঙ্গে তাদের সংবর্ধনা জানান।
তেরঙ্গা যাত্রা আনোয়ার শাহ মোড়ের সামনে এন মোহন রাও সংক্ষীপ্ত ভাষণে বলেন, ‘ভারতকে আত্মনির্ভর বানানোর জন্য আজ থেকেই আমাদের প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হওয়া উচিত, নতুন ভারত গড়া তখনি সম্ভব যখন আমরা সমগ্র দেশে আত্মনির্ভরতার পরিচয় দিতে পারি।’ বিজেপি টালিগঞ্জ ১ এর অন্যতম নির্ভর যোগ্য নেতা সৈকত বক্সী বলেন, ‘জাত-পাত, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে আমাদের একত্রিত হওয়ার সময় এসেছে, চীনের বিরুদ্ধে যদি চোখের উপর চোখ রেখে ভারত আজ জবাব দিতে পেরেছে তার সবথেকে বড় কারণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজির দেশব্যাপী গ্রহণযোগ্যতা।’
বিজেপির সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নেতা শেখ তারিক বলেন,’বিগত প্রায় ৭০ বছর ধরে সংখ্যালঘুদের শুধুমাত্র একটি ভোটব্যাংকে পরিণত করে দিয়েছিলো কংগ্রেস সরকার, একমাত্র বিজেপি ধর্মনিরপেক্ষতার পরিচয় দিয়ে গেছে বার বার।’
দক্ষিণ কলকাতা বিজেপির বরিষ্ঠ নেতা বিশ্বজিত দেবনাথ বলেন, ‘৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসের এক মাত্র সংকল্প হওয়া উচিত অখণ্ড ভারত এবং প্রকৃত ভারতীয় ইতিহাস পুনরুদ্ধার করা, তিনি বলেন পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর এবং চীন অধিকৃত ভারত আমাদের ভারতবর্ষের অভিন্ন অঙ্গ।’ সমাপ্তি ভাষণে সোমা ঘোষ বলেন, ‘করোনা মহামারীর এই কঠিন সময়ে বিজেপির প্রতিটি কর্মকর্তা এলাকার মানুষের পাশে আছেন।’ তিনি এরপর ভারতবর্ষের করোনা রিকভারি রেট ৭০ প্রতিশত অতিক্রম করার জন্য নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারকে ধন্যবাদ জানান।
এদিনের শোভাযাত্রার মূল উদ্যোক্তা ছিলেন বিজেপি টালিগঞ্জ মণ্ডল ১ এর সভাপতি সোমা ঘোষ, দক্ষিণ কলকাতা জেলা বিজেপির সহ সভাপতি  সৈকত বক্সী, সংখ্যালঘু নেতা শেখ তারিক এবং জেলা যুব মোর্চার সহ সভাপতি রাজীব দত্ত চৌধুরি। এই তিরঙ্গা যাত্রার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য এন মোহন রায় এবং দক্ষিণ কলকাতা বিজেপির বরিষ্ঠ নেতা বিশ্বজিৎ দেবনাথ। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুরসভার ১১২ নম্বর ওয়ার্ডের দাপুটে নেতা রাজেশ ঝা, ১১১ নম্বর ওয়ার্ডের লড়াকু নেতা জয়ন্ত মুখার্জী, মহিলা মোর্চার নেত্রী মুনমুন চট্টোপাধ্যায়, রীতু সিংহ এবং রুবি মন্ডল, জেলার যুব মোর্চার সম্পাদক সুরোজ মন্ডল, অশোক সাউ এবং জেলার লিগাল সেল কনভেনর শুভজিত বল প্রমুখ।

Related Articles

Back to top button
Close