fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপির বিজয়া সম্মেলন শুরু মথুরা চা বাগান এলাকায় ভোটে নজরে রেখেই বিজেপি সম্মেলন

সুমিত কার্যী, আলিপুরদুয়ার: লোকসভা ভোটের ফলের নিরিখে সরকার গঠন করতে আরব আত্মবিশ্বাসী বিজেপি ,
আবার নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।কয়েক মাস পরেই হচ্ছে রাজ্যের বিধানসভা ভোট।
নিজেদের লক্ষ্য নিয়েই দুর্গা পুজোর পর থেকেই বিজয়া উৎসবের মাধ্যমে জনসংযোগ করার কাজ শুরু করে দিয়েছে শাসক, বিরোধী

আসন্ন বিধানসভা ভোটকে টার্গেট রেখে বিজয়া সম্মিলনীর মাধ্যমে নির্বাচনী প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে আলিপুরদুয়ার – ১ ব্লকে । তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বিজয়া সম্মিলন অনুষ্ঠিত হয়েছে সাহেবপতায় কিছুদিন আগে ,আবার প্রতি অঞ্চল ভিত্তিক বিজয়া সম্মিলন শুরু করেছে শাসকদল। বিজেপির ১১ নং মন্ডলের পক্ষ থেকে এদিন ব্লকের মথুরা চা বাগান এলাকায় বিজয়া সম্মিলনের মাধ্যমে বিধানসভার প্রস্তুুতি শুরু করে দিল বিজেপিও।লোকসভা ভোটের নিরিখে আলিপুরদুয়ার বিধানসভা ক্ষেত্রে প্রায় ৩৭ হাজার ভোটে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি।এই এগিয়ে থাকার পিছনে আদিবাসী সম্প্রদায়ের ভোটের অনেকটাই বিজেপির পক্ষে গিয়েছে বলে মনে করছেন তারা । সেই ভোটকে ধরে রাখতেই বিজয়া সম্মিলনের জন্য ব্লকের আদিবাসী অধ্যুসিত মথুরা চা বাগান এলাকায় বিজেপির পক্ষ থেকে বেছে নেওয়া হয়েছে ।

বিজেপির ১১ নং মন্ডলের অন্যান্য অঞ্চলের থেকে কর্মীরা সম্মেলনে আসলেও মথুরা অঞ্চলের আদিবাসী সম্প্রদায়ের লোকদের উপস্থিতি অনেক ছিল, এবিষয়ে বিজেপির মথুরা অঞ্চল প্রমুখ রাজেন এক্কা অভিযোগ করেন তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে একশো দিনের কাজ আটকে দেবার ভয় দেখিয়ে গ্রামবাসীদের সম্মেলনে আসতে বাধা দেওয়া হয়েছে।শাহজাহান আলি,মন্ডল সভাপতি সাধন সাহা।এদিনের সম্মেলনে মন্ডলের সমস্ত অঞ্চল ও বুথ কর্মকর্তারাই উপস্থিত ছিলেন এবং এই রকম সম্মেলন অন্যান্য অঞ্চল ভিত্তিক হবে বলেও জানান মন্ডল সভাপতি সাধন সাহা। বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক বীরেন্দ্র বারা বলেন,”চা বাগানের লোকের সমস্যার ব্যাপারে রাজ্য সরকার কোন রকম নজর দেয়না। এখনও চা শ্রমিকদের মজুরি অনেকটাই কম।রাজ্যে বিজেপির সরকার আসলে এই সব সমস্যার সমাধান করা হবে”।

বিজেপির এই সম্মেলনকে পাত্তা দিতে নারাজ তৃণমূলের ব্লক সভাপতি মনোরঞ্জন দে। উনি বলেন, “এগুলো লোক দেখানো ছাড়া কিছুই না,বিজেপির হিন্দু প্রেম আমরা দেখতে পেরেছি বিহারে দুর্গাপুজোর বিসর্জনে পুলিশের লাঠি চার্জের মাধ্যমে।আমদের রাজ্যে তো সুষ্ট ভাবে দুর্গা পূজা হয়েছে,বিজেপি শাসিত রাজ্যে তো পুজো করারও অনুমতি দেয়নি”।

Related Articles

Back to top button
Close